নারকেল সঙ্কটে গাছে চড়ে সংবাদ সম্মেলন মন্ত্রীর

সমাজের কথা ডেস্ক॥ নানা কারণে দেশে নারকেল উৎপাদন কমে গেছে। এদিকে চাহিদা বাড়তে থাকায় বাড়ছে দাম। দেশে নারকেল সঙ্কটের কারণ এবং তা থেকে পরিত্রাণের উপায় জানাতে শ্রীলংকার এক প্রতিমন্ত্রী নারকেল গাছে চড়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

শ্রীলঙ্কার ছোট্ট শহর ডানকোটুয়ায় নিজের খামারবাড়িতে গত শুক্রবার আয়োজন করা ওই সংবাদ সম্মেলনে নারকেল বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অরুণদিকা ফার্নান্দো বলেন, ‘‘আশা করি আমাদের দেশের একটুকরো জমিও অনাবাদী থাকবে না এবং সব জায়গায় নারকেল গাছ লাগানো হবে। যাতে আমরা এ শিল্পকে এগিয়ে নিতে পারি। আমাদের দেশের জন্য বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ে আসা পণ্যগুলোর একটি নারকেল।”

নারকেল গাছের মাথাতে চড়েই তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। শ্রীলংকা এবং প্রতিবেশী ভারতের বেশিরভাগ সংবাদমাধ্যমে অরুণদিকার ওই প্রেস কনফারেন্সের খবর এবং ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে।

স্থানীয় শিল্পে নারকেলের চাহিদা বৃদ্ধি এবং খাবার হিসেবে নারকেলের জনপ্রিয়তা বাড়ায় শ্রীলংকায় নারকেলের চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশটিতে বর্তমানে চাহিদার তুলনায় ৭০ লাখ পিস নারকেল কম উৎপাদন হয় বলে জানান তিনি।

জনগণকে নারকেল গাছ রোপন এবং নারকেল উৎপাদনে উৎসাহ দিতেই তিনি অভিনব এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করেন।

ভিডিওতে এই প্রতিমন্ত্রীকে প্রথমে নারকেল গাছে চড়ার নতুন একটি যন্ত্রতে বসে গাছে চড়তে এবং গাছের উপর বসে এক হাতে একটি ডাব নিয়ে কথা বলতে দেখা যায়।

শ্রীলংকায় নারকেলের দাম বেড়ে যাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘দেশে নারকেলের সঙ্কট থাকার পরও সরকার এ পণ্যের দাম কমাতে চায়।”

দেশের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বাজারেও নারকেলের চাহিদা বেড়ে যাওয়া এ পণ্যের দাম বৃদ্ধির কারণ বলে মনে করেন তিনি। তবে যেহেতু দেশেই চাহিদার তুলনায় নারকেল উৎপাদন কম তাই এই পণ্য রপ্তানি না করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

অরুণদিকা শ্রীলংকার নারকেল, পাম, তাল ও রাবার চাষ প্রচার এবং এ সম্পর্কিত শিল্প পণ্য উৎপাদন ও রপ্তানি বৈচিত্র বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী।

 

শেয়ার