আদালতের আদেশ উপেক্ষা করে কেশবপুরের গড়ডাঙ্গা বাজারে দোকান ভেঙ্গে দেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের কেশবপুর গড়ভাঙ্গা বাজারের একটি দোকান ঘর আদালতের আদেশ উপেক্ষা করে ভেঙ্গে দিয়েছে আমীর আলী ও তার লোকজন। এ ব্যাপারে দোকান ঘরের মালিক মাদারডাঙ্গা গ্রামের নজরুল ইসলাম মানবাধিকার উন্নয়ন উদ্যোগ ফাউন্ডেশনে অভিযোগ দিলে তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।
নজরুল ইসলাম জানিয়েছেন, গড়ভাঙ্গা বাজারে পৈত্রিক সূত্রে পাওয়ায় ৬৬ শতক জমি আছে তাদের। জমির উপর বেশ কয়েকটি দোকান ঘর আছে। যা ভাই-বোনেরা মিলে বেড়া দিয়ে ভোগদখল করে আসছেন। তাদের দোকানের উত্তর পাশে গলিপথের মাথায় আমির আলী ও তার ভাইয়ের দুইটি দোকান আছে। আমির আলী এক শতকের কম জমি কিনে ৩ শতক ভোগদখল করছে। এরমধ্যে আমির আলী ও তার লোকজন তার উত্তর পাশের দোকান ঘর ভেঙ্গে দেয়ার হুমকি দেয়। এ ব্যাপারে নির্বাহী আদালতে মামলা করা হয়। রায় তার পক্ষে যায়। এরপর তিনি দেওয়ানি আদালতে মামলা করেন। আদালত নিষেধাজ্ঞা আদেশ দেন বিবাদীদের। এরপর আদালতের আদেশ উপেক্ষা করে দোকান ঘরে ভেঙ্গে দেয় আমির আলী ও তার লোকজন। আদালতের আদেশ অমান্য ও ঘর ভাঙ্গার অভিযোগে দুইটি মামলা করা হয়। উভয় মামলার তদন্ত প্রতিবেদন তার পক্ষে। এরপর বিবাদীরা নজরুল ইমলামকে ভাঙ্গা দোকান ঘর মেরামত করতে বাধা ও খুন জখমের হুমকি দিচ্ছে।
নজরুল ইসলাম জানিয়েছেন, বিকল্প পদ্ধতিতে বিরোধ নিষ্পত্তিতে আইনগত সহযোগিতা চেয়ে মানবাধিকার উন্নয়ন উদ্যোগ ফাউন্ডেশনে আবেদন করেছিলাম। আবেদনের প্রেক্ষিতে উভয় পক্ষকে নোটিশ দিয়ে একটি তদন্ত তদন্ত দল ঘটনাস্থলে এসেছিল। তারা উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনেছেন। আদালতের আদেশ অমান্য করে আমির আলী ও তার লোকজন দোকান ভেঙ্গেছে তার প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত দল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কেশবপুর থানার ভারপ্রপ্ত কর্মকর্তা জসিম উদ্দীন, মানবাধিকার উদ্যোগ ফান্ডেশনের অ্যাডভোকেট রুহিন বালুজ, অ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলাম (এজিপি), অ্যাডভোকেট শান্তনু সরকার পল্টন প্রমুখ।

 

শেয়ার