যবিপ্রবি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় যশোরসহ তিন জেলার ১২ জন করোনায় আক্রান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর জেলায় নতুন করে চারজনের শরীরে করোনাভাইরাস সনাক্ত হয়েছে। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জিনোম সেন্টারের ল্যাবে এদিন যশোরসহ তিন জেলার ১২ জনের করোনা সনাক্ত হয়েছেন। এছাড়া খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাব থেকে পাঁচজনের নমুনা পরীক্ষা শেষে সবকয়টি নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। বুধবার সকালে জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন এই ফলাফল ঘোষণা করেন। যবিপ্রবির অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. তানভীর ইসলাম জানান, যশোর জেলার ১৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন চারজনের করোনা পজিটিভ সনাক্ত হয়েছে। এছাড়া মাগুরা জেলার ৩৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে সবকয়টি নেগেটিভ ফল পাওয়া গেছে। এছাড়া নড়াইল জেলার ২৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে আটজনের শরীরে কোভিড-১৯ সনাক্ত হয়েছে। অর্থাৎ ল্যাবে গেল ২৪ ঘণ্টায় তিনজেলার সর্বমোট ৭৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১২ জনের নমুনা করোনা পজিটিভ এবং ৬২ জনের নেগেটিভ ফল এসেছে।
অপরদিকে যশোর জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, যবিপ্রবি ও খুমেক ল্যাবে যশোরেরর সর্বমোট ২২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে চার জনের পজিটিভ ফল পাওয়া গেছে। এছাড়া খুমেক ল্যাব থেকে আসা পাঁচটি নমুনার সবকয়টির নেগেটিভ ফল পাওয়া গেছে। তিনি আরও জানান, জেলায় সনাক্তকৃত চার জনের মধ্যে সদর উপজেলায় দুইজন, অভয়নগর উপজেলায় একজন এবং মণিরামপুর উপজেলায় একজন কোভিড-১৯ সনাক্ত হয়েছেন। এই নিয়ে জেলায় সর্বমোট ৩ হাজার ৬৮৩ জনের শরীরে কোভিড-১৯ পজেটিভ সনাক্ত হয়েছে। এ সময় সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ৪৬৬ জন এবং ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় যশোরে ৪২ জন করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন।
সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে, জেলায় আক্রান্তরা হলেন, শহরের ঘোপ এলাকার বাসিন্দা; পাকশী রেলওয়ে হাসপাতালে কর্মরত জামান আল মিজান (২৯) ও চাঁচড়ার তৌহিদুল ইসলাম (৫০)। এছাড়া অভয়নগর উপজেলার শংকরপাশা গ্রামের হাসানুজ্জামান (২৫) এবং মণিরামপুর উপজেলার খানপুর গ্রামের রবিউল ইসলাম (৬৫)। আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউনসহ বিভিন্ন প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

শেয়ার