সুইজারল্যান্ডে উন্মোচিত হলো বৈদ্যুতিক ‘উড়ুক্কু’ স্পিডবোট

সমাজের কথা ডেস্ক॥ বিশ্বের প্রথম বিদ্যুৎ চালিত স্পিডবোটের দেখা মিলেছে সুইজারল্যান্ডের লেকে। ঢেউয়ের ওপর দিয়ে অনেকটা ‘উড়ে’ চললেও শক্তি খরচ কম হয় এবং শব্দ কম হয় এই স্পিডবোটে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে বলছে, পানির ওপরে ভেসে চলাকালীন সর্বোচ্চ ৫৫ কিলোমিটার পর্যন্ত গতিবেগ তুলতে পারে ক্যানডেলা সেভেন নামের এই স্পিডবোটটি।

স্পিডবোটটির প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের দাবি, অন্যান্য বৈদ্যুতিক নৌকার চেয়ে আরও বেশি পথ নিরবে পাড়ি দিতে পারে ক্যানডেলা সেভেন।

স্পিডবোটটি আলাদা পাখার মাধ্যমে পানির ওপরে ভেসে চলার কারণে এতে পানির ঘর্ষণ এবং ঢেউয়ের প্রভাব কম পড়ে। এতে অন্যান্য স্পিডবোটের তুলনায় শক্তি খরচ ৮০ শতাংশ কমে যায়। একবারের পূর্ণ চার্জে সর্বোচ্চ ৯০ কিলোমিটার পর্যন্ত চলতে পারবে স্পিডবোটটি।

সুইস আমদানিকারক ক্রিস্টিয়ান ভোগেল বলেছে, “কোনো ঢেউয়ের ধাক্কা না লাগায় এতে কোনো দোল খাওয়া লাগবে না, আর আপনি খুব মসৃণ একটি সফর উপভোগ করতে পারবেন।”

এতদিন পর্যন্ত ব্যাটারির সক্ষমতা সীমাবদ্ধতার কারণে বৈদ্যুতিক নৌকাগুলোর গতি বা সীমার যে কোনো একটায় ছাড় দিতে হতো প্রতিষ্ঠানগুলোকে।

চলতি সপ্তাহে লুসারন লেকে যাত্রা শুরু করেছে ক্যানডেলা সেভেন। এর মাধ্যমে ইউরোপের ভ্রমণ ব্যবসায় নতুন মাত্রা যোগ হবে বলে আশা করছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

রয়টার্স মন্তব্য করেছে, সুইজারল্যান্ডের জুরিখ, লুসারন এবং জিনিভা’র মতো হ্রদের পাশের শহরগুলোতে ভ্রমণের জন্য সুন্দর এবং উপযোগী বিষয় হবে এটি।

বিদ্যুত চালিত স্পিডবোটটির দাম পড়বে প্রায় আড়াই লাখ ইউরো।

 

শেয়ার