শালিখায় সামাজিক দ্বন্দ্বের জেরে মারধর ॥ ৪ জন হাসপাতালে

শালিখা প্রতিনিধি ॥ শালিখায় সামাজিক দ্বন্দ্বের জের ধরে প্রতিপক্ষের রামদা ও লাঠির আঘাতে চার জন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করে শালিখা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটে গত মঙ্গলবার সকাল সাতটায় একই উপজেলার কাঁঠালবাড়ীয়া গ্রামে।
জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে ঐ গ্রামের ওলিয়ার (মাস্টার) রহমানের সঙ্গে একই মহল্লার ইকরাম আলীদের সামাজিক দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এরই জের ধরে গত মঙ্গলবার সকাল সাতটার দিকে ইকরাম আলীর ছেলে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র হুসাইন একটা খেলনা গুলটি নিয়ে খালের ধারে মাছ ধরতে যায়। একই সময় মারুফ হোসেন ঐ স্থানে মাছ ধরতে যায়। এক পর্যায় মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে উভয়ের মধ্যে কথাকাটাটি হয়। মারুফ ক্ষিপ্ত হয়ে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র হুসাইনকে গলা ধাক্কা দিয়ে খালের মধ্যে ফেলে দেয়। তার চিৎকার শুনে পিতা মাতা দৌঁড়ে এসে ফেলে দেয়ার কারণ জানতে চান। এ সময় ওলিয়ার মাস্টার পুনরায় হুসাইনকে মারপিট শুরু করে এবং খালের মধ্যে ফেলে দেয় ও তার দলের প্রভাশালী আতিয়ার (মাস্টার), মতিয়ার, মিঠু, ফশিয়ার, ইমরাত, নাজমুল, ইজাজ, রিপন, শিপন ও মারুফ তাদের হাতে থাকা রামদা ও লাঠি দিয়ে হাছিবুল, মনিরুল, হুসাইন ও রিনা বেগমকে মারপিট ও কুপিয়ে জখম করে। এ সময় মহল্লার লোকজন তাদের উদ্ধার করে শালিখা হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। এঘটনায় ঐদিন হাজরাহাটি তদন্ত কেন্দ্রে হাছিবুল বাদি হয়ে এগার জনকে আসামি করে। তাদের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করে। বর্তমান তারা অসুস্থ অবস্থায় শালিখা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শেয়ার