করোনা নিয়ে উদাসীন ভাব, বেড়েই চলেছে রোগী যশোরে সর্বশেষ আক্রান্ত ৯৯ জন

এস হাসমী সাজু
করোনাকালীন যশোরে যেন স্বাস্থ্য সচেতনতার বালাই নেই। মানতে দেখা যাচ্ছে না সামাজিক দূরত্বও। এমন পরিস্থিতিতে যশোরে করোনা রোগী বেড়েই চলেছে। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় এ জেলায় নতুন করে ১০০ জনের দেহে করোনা সনাক্ত হয়েছে। যার মধ্যে নতুন রোগী ৯৯ জন। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি ফলোআপসহ ৭৭ জন এবং খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে ২৩ জনের নমুনায় এই করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। আক্রান্তদের মধ্যে সব থেকে বেশি যশোর শহর ও সদর উপজেলাতে। ল্যাব দুইটি নমুনা পরীক্ষা শেষে সিভিল সার্জন দফতরে প্রতিবেদন পাঠায়। শনিবার সকালে জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন এ ফলাফল ঘোষণা করেন। এদিকে যবিপ্রবি’র অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. তানভীর ইসলাম জানান, গেলো ২৪ ঘণ্টায় ল্যাবে শুধুমাত্র যশোর জেলার ১৮৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭৭ জনের করোনা পজিটিভ সনাক্ত হয়েছে এবং ১০৮ জনের নেগেটিভ ফলাফল এসেছে।
অপরদিকে জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, গেল ২৪ ঘণ্টায় জেলায় সর্বমোট ২২৯ নজের নমুনা পরীক্ষা করে একটি ফলোআপসহ ১শ’ জনের নমুনাতে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। এর মধ্যে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টার ১৮৫টি নমুনা পরীক্ষা করে একটি ফলোআপসহ ৭৭টি এবং খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪৪ টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৩ জনের নমুনায় কোভিড-১৯ পজিটিভ পাওয়া গেছে। তিনি আরও জানান, যশোর জেলায় আক্রান্তদের মধ্যে ৪৯ জন সদর উপজেলার। এছাড়া ঝিকরগাছা উপজেলায় ১২ জন, মণিরামপুর উপজেলায় ৯ জন, শার্শা উপজেলায় ৬ জন, অভয়নগর উপজেলায় ৫ জন, কেশবপুর উপজেলায় ১৩ জন এবং চৌগাছা উপজেলায় একজন ফলোআপসহ ৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন।
সিভিল সার্জন অফিস সূত্র মতে, গত ১০ মার্চ থেকে জেলায় সর্বমোট ১২ হাজার ২৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ল্যাবে পরীক্ষা শেষে ১০ হাজার ৫৯৩ জনের ফলাফল জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ হাতে পেয়েছে। বাকি ১ হাজার ৪৩৩ জনের নমুনা ল্যাবে পরীক্ষার অপেক্ষয় আছে। এ সময় জেলায় সর্বমোট ২ হাজার ৭৬৩ জনের শরীরে কোভিড-১৯ সনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সুস্থ্য হয়ে উঠেছেন এক হাজার ৬৩২ জন এবং ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে জেলায় ৩২ জন হসপিটাল আইসোলেশনে এবং ৯৫১ জন হোম আইসোলেশনের চিকিৎসাধীন আছেন। এ বাদে যশোরে পরীক্ষা করিয়েছেন এমন অন্য জেলার লোক ১২ জনকে স্ব স্ব জেলায় রেফার করা হয়েছে।

শেয়ার