যশোরে আন্তঃজেলা চোরচক্রের তিন সদস্য আটক, ১৮ ইজিবাইক উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অভিযানে আন্তঃজেলা ইজিবাইক চোরচক্রের তিন সদস্যকে আটক করা হয়েছে। এসময় ১৮টি চোরাই ইজিবাইক, ৭০পিস চেতনানাশক ট্যাবলেট ও ৯টি মোবাইলফোন উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নিজ দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আশরাফ হোসেন।
পুলিশ সুপার জানান, গত ২৮ জুলাই নড়াইলের চাকই গ্রামের ইজিবাইক চালক রফিক গাজীকে ফোন করে ভাড়ার কথা বলেন যশোরের অভয়নগরের দেয়াপাড়া ব্রিজের সামনে নিয়ে যায় অজ্ঞাত এক ব্যক্তি। এরপর রফিক গাজীর ইজিবাইক নিয়ে ওই ব্যক্তি বসুন্দিয়ায় যায়। সেখানে এক বাড়িতে তারা দুপুরের খাবার খায়। সেখান থেকে অচেতন অবস্থায় পুলিশ রফিককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। গত ২ আগস্ট জ্ঞান ফিরলে রফিক জানান, তার ইজিবাইক, নগদ টাকা ও মোবাইল খোয়া গেছে। এরপর বুধবার রাতে জেলা ডিবি পুলিশের ইনচার্জ সোমেন দাশের নেতৃত্বে একটি টিম গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গোলাবাড়ীয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে চোর চক্রের মূলহোতা আলম ফারাজি, রবিউল ইসলাম নামে দুইজনকে আটক করে। এসময় সেখান থেকে ইমরান শেখ নামে অপহৃত কুষ্টিয়ার এক ইজিবাইক চালককেও উদ্ধার করা হয়। এরপর তাদের দেওয়া তথ্য মতে, কুষ্টিয়া শহরের চৌড়হাস ফুলতলা এলাকার মিজানুর রহমানের গ্যারেজ থেকে রফিক গাজীরটিসহ মোট ১৮টি ইজিবাইক উদ্ধার করা হয়। এছাড়া গ্যারেজ মালিক মিজানুরকে আটক করা হয়। আসামিদের কাছ থেকে ৭০ পিস চেতনানাশক ট্যাবলেট ও ৯টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। যা দিয়ে তারা ইজিবাইক চালকদের অপহরণ ও ইজিবাইক ছিনতাই করতো। এ ঘটনায় অভয়নগর থানায় মামলা করা হয়েছে। তাদের আদালতে সোপর্দ করে রিমান্ড চাওয়া হবে। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) শিকদার সালাউদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

শেয়ার