করোনা দুর্যোগ উত্তরণে গণ কমিটি যশোরে করোনা টেস্ট বন্ধের উদ্যোগে নিন্দা

করোনা দুর্যোগ উত্তরণে গণ কমিটির পক্ষ থেকে তীব্র প্রতিবাদ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে এক বিবৃতি দিয়েছেন কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক আফসার আলী, যুগ্ম আহ্বায়ক ডা. আহসান কবির, রুকুনউদ্দৌলা, অ্যাডভোকেট কাজী ফরিদুল ইসলাম, মাহবুবুর রহমান মজনু, অ্যাডভোকেট শহীদ আনোয়ার, মিজানুর রহমান, অর্চনা বিশ্বাস, পাভেল চৌধুরী, সানোয়ার আলম খান দুলু, তসলিমউর রহমান। অ্যাডভোকেট আবুল হোসেন, হাচিনুর রহমান, জিল্লুর রহমান ভিটু, আলাউদ্দিন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, কিসের ভিত্তিতে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব বিদ্যালয়ে করোনার নমুনা টেষ্ট বন্ধ করা হল আমরা জানি না, কার নির্দেশে হল তাও জানিনা। তবে কি যশোরসহ এই অঞ্চল করোনা মুক্ত ? একই সাথে আমরা লক্ষ্য করলাম ১২ আগস্ট থেকে স্বাস্থ্য বুলেটিন প্রচার বন্ধ করা হয়েছে। তাহলে দেশে আর করোনা নেই কর্তাব্যক্তিরা মনে করেন ? তবে দিন না গড়াতে গতকাল থেকেই স্বাস্থ্য বুলেটিন প্রচারের ঘোষণা এসেছে জনতার চাপে। আমরা আশেপাশে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিদিন নিকটজন, পরিচিতজনদের আক্রান্ত হওয়ার ও মারা যাওয়ার সংবাদ পাচ্ছি। এরূপ পরিস্থিতিতে টেষ্ট করা বন্ধ করে যশোর সহ এই অঞ্চলের জনগণকে মহাঝুঁকির মাঝে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে এবং স্বাস্থ্য বুলেটিন প্রচার বন্ধ করে জাতিকে রিলাক্স মুডে জীবনযাপনে উৎসাহিত করা হয়েছিল, যা মহাবিপদ ডেকে আনার জন্য যথেষ্ট ছিল। জনতার চাপে স্বাস্থ্য বুলেটিন প্রচার করার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকারের মন্ত্রী, উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা কিন্তু গণসংযোগ এড়িয়ে চলছেন। জনগণ কোন সমস্যায় তাদের স্বাক্ষাত পাচ্ছে না। তারা ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে থেকে গোটা জাতিকে বিপদের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। সরকারের এই দ্বিমুখি নীতি যশোরে করোনা টেস্ট বন্ধ ও স্বাস্থ্য বুলেটিন বন্ধের উদ্যোগে নিন্দা, ক্ষোভ ও জোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আবিলম্বে এই আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে পুনরায় যশোরে করোনা টেস্ট চালু ও স্বাস্থ্য বুলেটিং প্রচার অব্যাহত রাখার আহবান জানানো হয়। -সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

শেয়ার