আশাশুনিতে কুল্যা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দূর্নীতির তদন্ত সম্পন্ন

আশাশুনি প্রতিনিধি॥ আশাশুনির ৩নং কুল্যা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল বাছেদ আল হারুন চৌধুরীর বিরুদ্ধে বুধবার আশাশুনি সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানা ইউনিয়নবাসীর উপস্থিতিতে তদন্তকাজ সম্পন্ন করেছেন। সরেজমীন ও বিভিন্ন সুত্রবলছে কুল্যা ইউনিয়নের একাধিকবার প্রয়াত চেয়ারম্যান এসএম রফিকুল ইসলামের অকাল মৃত্যুতে গত কয়েক মাস আগে ইউনিয়টিতে উপ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে নৌকার প্রতীক নিয়ে আব্দুল বাছেদ আল হারুন চৌধুরী নির্বাচিত হন। এদিকে ক্ষমতা পাওয়ার পর থেকে তিনি ইউনিয়ন পরিষদকে দূর্নীতি অনিয়ম আর স্বজন প্রীতির স্বর্গরাজ্য হিসাবে গড়ে তুলেছেন। এ সকল কর্মকান্ডে স্ব স্ব ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যগন চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে তিনি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ সহ বিভিন্ন মামলা হামলার ভয় দেখিয়ে আসছেন। এ অবস্থায় দুস্থ অসহায় মেহনতি মানুষের কথা বিবেচনা করে ইউনিয়নের ১২জন ইউপি সদস্য একযোগে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা ঘোষনা দিয়ে জেলা প্রশাসক সহ বিভিন্ন দপ্তরে দূর্নীতির ফিরিস্তি তুলে ধরে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। তদন্তকালে ইউপি চেয়ারম্যান ও ১২জন ইউপি সদস্যসহ ইউনিয়নের সকল শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। এ ব্যাপারে সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তদন্তের একটি অংশ হিসাবে আমি পরিষদবর্গদের নিয়ে সার্বিক বিষয় আলোচনা করেছি। মূল বিষয় ছিলো ইউপি চেয়ারম্যানের প্রতি ইউপি সদস্যদের কতজন অনাস্থা এনেছে। চেয়ারম্যানের পক্ষে কিছু ইউপি সদস্যের সমর্থন থাকলে ভোটের প্রয়োজন ছিলো, কিন্তু সকল ইউপি সদস্যগন তার প্রতি কঠিনভাবে অনাস্থা জ্ঞাপন করেছেন। সে ক্ষেত্রে আর কোন ভোটের প্রয়োজন হয়নি। সে মোতাবেক আমি আমার উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের নিকট অচিরেই প্রতিবেদন দাখিল করব।

 

শেয়ার