লোহাগড়ায় ভাড়াটের স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে বাড়ি মালিকের ছেলে আটক

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি ॥ নড়াইলের লোহাগড়ায় বাড়ির মালিকের ছেলে ভাড়াটের স্ত্রীকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্তকে আটক করেছে।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নড়াইল সদর থানার বাসিন্দা ও ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলের এক চালক তার স্ত্রীকে নিয়ে লোহাগড়া পৌরসভার লক্ষীপাশা গ্রামে জনৈক ব্যক্তির বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।
গত শনিবার রাতে স্বামী বাসায় ফেরেননি। এই সুযোগে বাড়ির মালিক মুজিবর রহমানের ছেলে সজিব শেখ (২৭) ধারালো অস্ত্রের মুখে ওই ভাড়াটের স্ত্রীকে ধর্ষণ করে এবং শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে কামড়িয়ে জখম করে। ধর্ষণের বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য ধর্ষক হুমকিও দেয়। ধর্ষিতা চারদিন পর বিষয়টি তার স্বামীকে জানালে তার স্বামী গত বুধবার লোহাগড়া থানায় অভিযোগ করলে রাতেই পুলিশ অভিযুক্ত সজিবকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।
বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে নড়াইল সদর হাসপাতালে ধর্ষিতার ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। ধর্ষিতা গৃহবধু সাংবাদিকদের জানান, বাড়ির মালিকের ছেলে সজিব বেশ কিছুদিন ধরে আমাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। লোকলজ্জার ভয়ে কাউকে বলিনি। সজিবের মামাতো ভাই নাসিরউদ্দিন গৃহবধুকে ধর্ষণ করতে সহযোগিতা করেছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।
লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আশিকুর রহমান বলেন, ওই গৃহবধু ধর্ষক সজিবের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত সজিবকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার