‘উগ্র বামদের’ হারানোর প্রতিশ্রুতি ট্রাম্পের

সমাজের কথা ডেস্ক॥ যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে হোয়াইট হাউসে দেওয়া এক ভাষণে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ‘উগ্র বামদের’ পরাজিত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

শনিবারের ভাষণে যুক্তরাষ্ট্রের ঐতিহাসিক বিভিন্ন স্মারক ও ভাস্কর্যর বিরুদ্ধে বিক্ষোভের নিন্দা জানিয়ে তিনি একে যুক্তরাষ্ট্রকে ধ্বংসের চেষ্টা হিসেবে অভিহিত করেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

কোনো প্রমাণ বা তথ্য-উপাত্ত না দিয়ে রিপাবলিকান এ প্রেসিডেন্ট বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের ৯৯ শতাংশের রোগই ‘মামুলি’।

মহামারী মোকাবেলায় যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনের ‘অদক্ষতায়’ বিরোধিদের চরম সমালোচনার মুখে পড়া ট্রাম্প তার ৪ জুলাইয়ের (স্বাধীনতা দিবস) ভাষণে নতুন করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার জন্য চীনকে ‘অবশ্যই জবাবদিহি’ করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন।

ট্রাম্প যেখানে দাঁড়িয়ে ভাষণ দিয়েছেন তার কয়েক গজ দূরে সড়ক আটকে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ কর্মসূচি করেছে বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনকারীরা। হোয়াইট হাউসের সামনের ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার প্লাজা ও পাশের লিংকন মেমোরিয়ালের আশপাশের সড়কগুলোতে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ দেখায় তারা।

এসব স্থানে ট্রাম্প সমর্থকরা ‘যুক্তরাষ্ট্র’, ‘যুক্তরাষ্ট্র’ স্লোগানে পাল্টা বিক্ষোভ দেখালেও দুই পক্ষের মধ্যে সহিংসতার কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

মে’র শেষ সপ্তাহে মিনিয়াপোলিসে পুলিশ হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ এক ব্যক্তির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে পুলিশি নির্যাতন ও বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে গড়ে ওঠা আন্দোলনে দেশটির লাখ লাখ নাগরিক অংশ নিচ্ছেন।

কোথাও কোথাও বিক্ষোভকারীরা যুক্তরাষ্ট্রে দাস নির্যাতনের ইতিহাস বহন করা বিভিন্ন ভাস্কর্য ও প্রতীক উপড়ে ফেলেছে। এমনকী হোয়াইট হাউসের কাছে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রু জ্যাকসনের ঘোড়ায় চড়া মূর্তিটিও ভেঙে ফেলার চেষ্টা করেছিল তারা।

“সবসময় এমন কিছু মানুষ ছিল যারা ক্ষমতা অর্জনের জন্য অতীত সম্বন্ধে মিথ্যা বলে এসেছে। তারা আমাদের ইতিহাস নিয়ে মিথ্যা বলছে, তারা চাইছে আমরা আজ যা, তার জন্য যেন লজ্জিত হই। তাদের লক্ষ্য হচ্ছে ধ্বংস,” স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে বলেন ট্রাম্প।

আগের রাতে সাউথ ডাকোটার মাউন্ট রাশমোরে দেয়া এক বক্তৃতায় রিপাবলিকান এ প্রেসিডেন্ট ‘ক্রুদ্ধ দুস্কৃতিকারীরা’ যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাস মুছে ফেলার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছিলেন। উগ্র বামপন্থা মোকাবেলায় নিজেকে ‘ত্রাণকর্তা’ হিসেবেও চিত্রিত করেন ট্রাম্প।

ট্রাম্পের ভাষণের পর শনিবার রাতে রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির ন্যাশনাল মলের আকাশে আতশবাজির প্রদর্শনী করে মার্কিন প্রশাসন।

ওয়াশিংটনের মেয়র মুরিয়েল বাউজারের সতর্কতা উপেক্ষা করেই এ আতশবাজি প্রদর্শনী হয় বলে রয়টার্স জানিয়েছে। এ ধরনের অনুষ্ঠানে ব্যাপক দর্শক সমাগম হলে, সেখানে সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্য কর্মীদের দেয়া নির্দেশনা বাস্তবায়ন কঠিন হবে বলে সতর্ক করেছিলেন বাউজার।

আসছে নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। এর প্রায় চার মাস আগে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্যগুলোতে জনমত জরিপে ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দী জো বাইডেনের চেয়ে খানিকটা পিছিয়ে আছেন ট্রাম্প। এ পরিস্থিতিতে তিনি সাম্প্রতিক বিভিন্ন ভাষণ ও নির্বাচনী প্রচার সমাবেশগুলোতে উগ্র জাতীয়তবাদকে উসকে দিয়ে নিজের অবস্থান শক্তিশালী করার চেষ্টা করছেন বলে মত পর্যবেক্ষকদের।

শেয়ার