যশোরে অবৈধ বাইসাইকেল হাট পরিচালনার অভিযোগে দুজন আটক, রশিদ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর শহরতলীর বিরামপুরে অবৈধ বাইসাইকেল হাট পরিচালনার অভিযোগে দু’জনকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার উপশহর ক্যাম্পের পুলিশ তাদের আটক করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে অবৈধভাবে খাজনা আদায়ের রশিদ উদ্ধার করা হয়েছে।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, যশোর শহরতলীর উপশহর ইউনিয়নের বিরামপুরে একটি চক্র দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে বাইসাইকেল ও রিক্সার হাট পরিচালনা করে আসছে। এই চক্রের অধিকাংশ সদস্য মাদক কারবারের সাথেও জড়িত। তারা অবৈধভাবে ওই হাট থেকে খাজনা আদায় করে। সেখানে কোন রিক্সা অথবা বাইসাইকেল বিকিকিনি হলেই অবৈধ হাট পরিচালনাকারীরা রশিদও দিয়ে খাজনা আদায় করে থাকে। দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে হাট বসানো হলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ রহস্যজনক কারণে কোন পদক্ষেপ নেয় না।
এলাকাবাসী আরো জানায়, গতকাল শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে উপশহর ক্যাম্পের পুলিশ বিরামপুরের ওই বাইসাইকেল হাট পরিচালনাকারী দু’জনকে ধরে নিয়ে গেছে।
তারা হলো, বিরামপুরের আব্দুল মান্নানের ছেলে সাগর ওরফে ভাগ্নে সাগর এবং স্থানীয় নারী ইউপি সদস্য মুক্তা বেগমের ভাই রাহাত হোসেন। তাদের কাছ থেকে পুলিশ খাজনা আদায়ের কয়েকটি রশিদ জব্দ করেছে।
উপশহর পুলিশ ক্যাম্পের এএসআই রিপন মিয়া জানান, উর্ধ্বতন কর্র্তৃপক্ষের নির্দেশে ভাগ্নে সাগর ও রাহাতকে ধরে আনা হয়েছে। আটককালে হাট পরিচালনার বৈধ কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। তবে তারা দাবি করেছেন, তাদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র রয়েছে।
কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান বলেছেন, ওই দু’জনকে তারা ডেকে এনেছেন হাট পরিচালানার কোন কাগজপত্র আছে কি-না তা জানার জন্য।

শেয়ার