খুলনা ওয়াসায় ময়লাযুক্ত পানি সরবরাহ

এস.এম. সাঈদুর রহমান সোহেল, খুলনা ব্যুরো ॥ ‘খুলনা ওয়াসার পানি ব্যবহারের অনুপযোগী। নিয়মিত পানির বিল নিলেও সরবরাহকৃত পানি দুর্গন্ধ কাঁদা এবং ময়লায় পরিপূর্ণ। একাধিক গণমাধ্যমে এ নিয়ে একাধিকবার রিপোর্ট হলেও টনক নড়ছে না ওয়াসা কর্তৃপক্ষের। খুলনার সুধী সমাজের কাছে তাই বাধ্য হয়েই আমার অভিযোগ। কিছুই কি করার নেই’। এ মন্তব্য খুলনা ওয়াসার একজন গ্রাহকের। অ্যাডভোকেট মাসুম বিল্লাহ নামের এই গ্রাহক খুলনা ওয়াসার সরবরাহকৃত পানিতে এতোটাই তিক্ত-বিরক্ত যে, তিনি ময়লা পানিযুক্ত ছবিসহ উল্লিখিত মন্তব্য তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম-ফেসবুকে পোস্ট করেছেন।
গ্রাহক মাসুম বিল্লাহ বলেন, এ বিষয়ে ওয়াসাকে আইনি নোটিশ করা হবে। তাতেও কাজ না হলে পরবর্তীতে আরও কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।
এদিকে, একই সমস্যার সম্মুখীন অন্যান্য গ্রাহকরাও তার পোস্টে ওয়াসা সম্পর্কে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন, করেছেন নানা নেতিবাচক মন্তব্যও।
নাগরিক নেতা এসএম সোহরাব হোসেন মন্তব্য করেন, খুলনাবাসীর দীর্ঘ দিনের আন্দোলনের ফসল খুলনা ওয়াসা। জনগণের টাকায় ব্যাপক খোঁড়াখুঁড়ি ও অসহনীয় ভোগান্তির পর বিগ বাজেট প্রকল্পের সুপেয় পানির পরিবর্তে লবণাক্ত, নোংরা, ময়লা ও আয়রণযুক্ত ব্যবহার অনুপযোগী পানি নগরবাসীকে দিয়েই প্রতিমাসে টাকা আদায়ে ব্যস্ত কর্তারা। এই অন্যায়, অবিবেচনা প্রসূত কাজ মেনে নেওয়া যায় না। প্রতিবাদ- কর্মসূচিতে থাকে না নগরবাসীর অংশগ্রহণ। জন প্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের গা ছাড়া ভাব। এতে ওয়াসার দায়িত্বশীলদের থাকে না মাথাব্যথা। সুতরাং নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনই পারে ওয়াসার অনিয়ম রুখতে। এখন প্রয়োজন যার যার অবস্থান থেকে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিবাদ করা।
এদিকে ঘোলা ও ময়লাযুক্ত পানি সরবরাহের বিষয়টি স্বীকার করে খুলনা ওয়াসার উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক-ডিএমডি কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, ১ জুলাই নগরীর বসুপাড়া এলাকায় বিটিসিএল’র টেলিফোন লাইনে কাজ করতে গিয়ে ওয়াসার মূল লাইনের পাইপ ফাটিয়ে ফেলেছে। এ কারণে ওই স্পট থেকে পানিতে কাঁদা মাটি প্রবেশ করেছে। এ কারণে তিন দিন ধরে ২/৩টি ওয়ার্ডের কয়েক হাজার গ্রাহক ঘোলা পানি পেয়েছেন। বিষয়টি জানতে পেরে দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে শুক্রবার (৩ জুলাই) দুপুর নাগাদ পাইপটি মেরামত করা সম্ভব হয়েছে। শনিবার থেকে গ্রাহকরা পরিস্কার পানি পাবেন বলেও আশা করেন তিনি। তবে রাস্তা খোঁড়ার আগে বিটিসিএল ওয়াসা কর্তৃপক্ষকে অবহিত না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন এই কর্মকর্তা।

শেয়ার