ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ইরানের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ইরাকে শীর্ষ ইরানি জেনারেল কাসেম সোলেমানিকে হত্যার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে ইরান। গ্রেপ্তারে সহায়তার জন্য ইন্টারপোলের সহায়তাও চেয়েছে দেশটি।
তেহরানের সরকারি কৌসুলিঁ আলি আলকাসিমেহর সোমবার একথা জানিয়ে বলেছেন, শুধু ট্রাম্পই নন, আরও ৩৫ জনের বিরুদ্ধে এই পরোয়ানা জারি হয়েছে। ইরানের ফার্স বার্তা সংস্থা এ খবর দিয়েছে।

গত ৩ জানুয়ারিতে ইরাকের রাজধানী বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্রের চালক বিহীন বিমান (ড্রোন) হামলায় নিহত হন ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডসের এলিট কুদ’স ফোর্সের প্রধান কাসেম সোলেমানি।

ইরানি এই কমান্ডার ওই এলাকায় যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনীর ওপর ইরান সমর্থিত মিলিশিয়া বাহিনীর হামলার হোতা ছিলেন বলে অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রের।

ইরানি কৌসুলিঁ আলি আলকাসিমেহর বলেন, হত্যা এবং সন্ত্রাসী কর্মকা-ের অভিযোগে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

সোলেমানি হত্যায় জড়িত থাকার ঘটনায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং অন্যান্যদের গ্রেপ্তারের জন্য আন্তর্জাতিক পুলিশ ইন্টারপোলকে ‘রেড নোটিশ’ জারি করারও অনুরোধ জানিয়েছে ইরান।
ট্রাম্প ছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক এবং বেসামরিক কর্মকর্তারা আছেন বলে জানিয়েছেন আলি। তবে তাদের নাম-পরিচয় সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানাননি তিনি। আলি বলেন, ট্রাম্পের ক্ষমতার মেয়াদ শেষের পরও ইরান এ মামলা চালিয়ে যাবে।

ইরানের সশস্ত্র বাহিনীতে জেনারেল কাসেম সোলেমানি ছিলেন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি, রাষ্ট্রীয়ভাবে তাকে দেওয়া হত জাতীয় বীরের সম্মান।

তার কুদস ফোর্স কাজ করে মূলত বিপ্লবী গার্ডস বাহিনীর ‘ফরেইন উইং’ হিসেবে। এই বাহিনী জবাবদিহি করে সরাসরি ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনির কাছে।

সোলেমানি হত্যাকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্র এবং ইরান সশস্ত্র সংঘাতের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গিয়েছিল। সোলেমানি নিহতের ঘটনার কয়েকদিন পরই ইরাকের মার্কিন লক্ষ্যবস্তুতে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে এর পালটা জবাব দেয় ইরান।

শেয়ার