বিহার, উত্তর প্রদেশে বজ্রপাতে শতাধিক মৃত্যু

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় দুটি রাজ্যে কয়েকদিনের বজ্রপাতে শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

বিহারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ তাদের রাজ্যে বজ্রপাতে ৮৩ জনের মৃত্যু ও আরও অন্তত ২০ জনের গুরুতর আহত হওয়ার খবর দিয়েছে। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পার্শ্ববর্তী উত্তর প্রদেশেও বজ্রপাত অন্তত ২০ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে বলে কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বিবিসি।

বজ্রপাত ছাড়াও তুমুল বর্ষণ ও ঝড়ে এরই মধ্য উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্যগুলিতে অসংখ্য গাছ, ফসল ও সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সামনের দিনগুলোতে আবহাওয়া আরও খারাপ হতে পারে জানিয়ে রাজ্যগুলোর বাসিন্দাদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এরই মধ্যে হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন; দ্রুত ত্রাণ তৎপরতা শুরুরও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বজ্রপাতে ব্যাপক সংখ্যক মানুষের প্রাণহানি ঘটছে বলে জানিয়েছেন বিহারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী লক্ষ্মীশ্বর রাই।

গত কয়েকদিনে বজ্রপাতে যে ৮৩ জনের মৃত্যু হয়েছে, তার অর্ধেকেরও বেশি রাজ্যের উত্তর ও পূর্বের জেলাগুলোতে হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

উত্তর প্রদেশের বেশিরভাগ প্রাণহানি প্রয়াগরাজ ও নেপাল সীমান্তের কাছে অবস্থিত দেওরিয়া জেলায় হয়েছে বলে সেখানকার বিভিন্ন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

ভারতে ২০০৫ সাল থেকে বজ্রপাতে প্রতিবছর গড়ে দুই হাজার মানুষের মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছে দেশটির ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো।

২০১৮ সালে দেশটিতে বজ্রপাতঘটিত প্রাণহানির সংখ্যা ছিল দুই হাজার ৩০০র বেশি।

একই বছর কেবল অন্ধ্র প্রদেশেই ১৩ ঘণ্টায় ৩৬ হাজার ৭৪৯টি বজ্রপাত রেকর্ড করা হয়েছিল।

শেয়ার