যশোরে নতুন করে আরও ৭জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে নতুন করে আরও সাত ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এই নিয়ে জেলায় সর্বমোট ১১৯ জন করোনায় আক্রান্ত হলো।
গেলো ২৪ ঘণ্টায় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জিনোম সেন্টারে ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে করোনাভাইরাস সন্দেহে নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
যশোর ল্যাবে আক্রান্ত ব্যক্তি পুরুষ। তিনি সদর উপজেলার বাসিন্দা। তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টিনে রেখে বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন। খুলনার ল্যাবে পাওয়া ৬ জনের ঠিকানা জানা যায়নি।
সিভিল সার্জন অফিসের এমওসিএস ডা. রেহেনেওয়াজ জানান, শুক্রবার কেএমসি হাসপাতালের ল্যাবে করোনাভাইরাস সন্দেহে যে নমুনা পরীক্ষা করা হয় এরমধ্যে ৬টি পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে। অপরদিকে যবিপ্রবি জিনোম সেন্টারে ২৩টি নমুনা পরীক্ষা করে একটি পজেটিভ রিপোর্ট এসেছে। শুক্রবার জেলায় নতুন করে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য ২১টি নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। নমুনার সব কয়টি যবিপ্রবি জিনোম সেন্টারের ল্যাবে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।
এদিকে জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে, গেলো ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১৭ জনকে হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনা হয়েছে। এর মধ্যে ১৪ জনকে হোমে ও ৩ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এ সময়ে ভারত থেকে দেশে ফিরেছেন ৫৭৩ জন। এ বাদে জেলায় গত ১০ মার্চ থেকে ৫ জন পর্যন্ত মোট ৮৫দিনে জেলায় সর্বমোট ৬হাজার ৮০৫জনকে হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনা হয়েছে। এর মধ্যে ৬ হাজার ৬৪৬ জনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে জেলায় ১৫৯ জন হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের রয়েছেন। এ ব্যাপারে জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন বলেন, সুস্থ থাকতে সকল মানুষকে মাস্ক সব সময় ব্যবহার করতে হবে। প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে না যেতে পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

শেয়ার