চৌগাছার ‘করোনামুক্ত’ চিকিৎসক হঠাৎ অসুস্থ, হেলিকপ্টারে নেয়া হলো ঢাকায়

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ চৌগাছা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. নাহিদ সিরাজ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। শুক্রবার রাতে তাকে যশোর বিমানবন্দর থেকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নেওয়া হয়। এই ডাক্তার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে গত ৪ মে রিপোর্ট পাওয়া যায়। এর ঠিক একমাসের মাথায় গতকাল ৪ জুন তাকে ‘করোনাভাইরাসমুক্ত’ বলে ঘোষণা করা হয়। কিন্তু তার পরদিনই ডা. নাহিদকে গুরুতর অবস্থায় এয়ার অ্যাম্বুলেন্সযোগে ঢাকা নেওয়া হলো।
যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন শুক্রবার সন্ধ্যায় তড়িঘড়ি বিমানবন্দরের উদ্দেশে বেরিয়ে যান। কারণ জিজ্ঞেস করলে ওই অফিসের কেউ সঠিক তথ্য দিতে পারেননি। তবে অফিসটির একজন জানান, সম্ভবত কোনো রোগী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাকে ঢাকায় পাঠানোর জন্য সিএস বিমানবন্দরে যেতে পারেন।
করোনা পরিস্থিতিতে দেশের কয়েকটি বিমানবন্দর চালু হয়েছে হলেও তার মধ্যে যশোর নেই। তবে কি ভাড়া করা হেলিকপ্টার বা উড়োজাহাজে কাউকে ঢাকা পাঠানো হচ্ছে?
সন্ধ্যা সোয়া সাতটায় বিমানবন্দর-সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা যায়, সেখানে সিভিল সার্জন রয়েছেন। একটি অ্যাম্বুলেন্সসহ মোট তিনটি গাড়ি রয়েছে।
পরে সন্ধ্যা সাতটা ২৫ মিনিটে যোগাযোগ করা হয় সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীনের সঙ্গে। তিনি টেলিফোনে বলেন, ‘চৌগাছা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) গত মাসের ৪ তারিখে করোনায় আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার (৪ জুন) তাকে করোনামুক্ত ঘোষণা করা হয়। কিন্তু এরপর থেকেই তার শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। শুক্রবার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাকে ঢাকায় পাঠানো হলো এয়ার অ্যাম্বুলেন্সযোগে।’
তাহলে কি করোনামুক্তঘোষিত ডাক্তারের শরীরে কোভিড-১৯ জীবাণু রয়ে গেছে?- এমন প্রশ্নে সিভিল সার্জন বলেন, ‘সেটা পরীক্ষা না করে এখনই বলা যাবে না।’ এর আগে চৌগাছার এক প্রসূতিকে ‘করোনামুক্ত’ ঘোষণা করে তার হাতে সনদ ও ফুল তুলে দিয়েছিলেন যশোরের সিভিল সার্জন। ক’দিন পর জান্নাতি নামে সেই প্রসূতির নমুনা পরীক্ষার ফল পজেটিভ আসে। গত ৯ মে করোনাভাইরাস বহন করা অবস্থায় তিনি সন্তান জন্ম দেন যশোরের বেসরকারি জেনেসিস হসপিটালে।

শেয়ার