যশোরে নতুন সাত জন করোনায় আক্রান্ত
চিকিৎসকসহ আরও ১৬ ব্যক্তির করোনা জয়

এস হাসমী সাজু
যশোরে নতুন করে আরও সাত ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এই নিয়ে জেলায় সর্বমোট ১১৮ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন। এ সময় জেলায় ৪ চিকিৎসকসহ ১৬ জন করোনা জয় করেছেন। এ নিয়ে জেলায় সর্বমোট ৯৪ জন সুস্থ্য হয়ে উঠেছেন।
গেলো ২৪ ঘণ্টায় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জিনোম সেন্টারে ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে করোনাভাইরাস সন্দেহে ৬২টি নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। বাকি ৫৫ জনের ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। এর মধ্যে ১৯টি ফলোআপ রিপোর্ট রয়েছে। এ সময় করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নতুন করে জেলায় ৬০টি নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। বৃহস্পতিবার বিকালে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এই ফলাফল প্রকাশ করে।
আক্রান্ত সাতব্যক্তি’র মধ্যে অভয়নগর উপজেলার ৩ জন, ৩ জন শার্শা এবং একজন ঝিকরগাছা উপজেলার বাসিন্দা। তাদেরকে বাড়িতে রাখা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন।
সিভিল সার্জন অফিসের এমওসিএস ডা. রেহেনেওয়াজ জানান, বৃহস্পতিবার যবিপ্রবি জিনোম সেন্টারে ও কেএমসি হাসপাতালের ল্যাবে করোনাভাইরাস সন্দেহে ৬২টি নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে কেএমসি হাসপাতালের ল্যাবে করোনাভাইরাস সন্দেহে ৩৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪টি পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া যায়। বাকি ৩২টি নেগেটিভ রিপোর্ট আসে। এর মধ্যে ১৫টি ফলোআপ রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। অপরদিকে যবিপ্রবি জিনোম সেন্টারে ২৬টি নমুনা পরীক্ষায় করে ৩টি পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে। বাকি ২২টি নেগেটিভ ফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ৪টি ফলোআপ রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এ সময় করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নতুন করে জেলায় ৬০টি নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এর মধ্যে কেএমসি হাসপাতালের ল্যাবে ৩৯টি ও যবিপ্রবি জিনোম সেন্টারের ল্যাবে ২১টি নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে যশোর ২৫০শয্যা জেনারেল হাসপাতালের ৪চিকিৎসকসহ জেলায় ১৬জনকে করোনা জয় করেছেন। জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন তাদেরকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। পরে ছাড়পত্র দিয়ে বাড়ি থেকে লকডাউন তুলে নেন।
সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন বলেন, জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন ৭ জনের কোন উপসর্গ নেই। তাদের বাড়ি খুঁজে লকডাউনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

শেয়ার