সংক্রমণ বাড়ার মধ্যেই লকডাউন শিথিল করছে ভারত

সমাজের কথা ডেস্ক॥ করোনাভাইরাস সংক্রমণের দৈনিক রেকর্ড বৃদ্ধির মধ্যেই লকডাউন আরো শিথিলের পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে ভারত।

কেন্দ্রীয় সরকার লকডাউনের মেয়াদ ৩০ জুন পর্যন্ত বাড়ানোর ঘোষণা দিলেও তিন ধাপে তা শিথিলের পরিকল্পনাও জানিয়েছে।

সরকারি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রথম ধাপে ৮ জুন থেকে বহু জায়গাতেই খুলে দেওয়া হচ্ছে শপিংমল, হোটেল, রেস্তোরাঁ, ধর্মীয় স্থান। সব নিষেধাজ্ঞা এভাবে ধাপে ধাপে তুলে দেওয়া হবে।

দ্বিতীয় ধাপে জুলাই থেকে স্কুল-কলেজও খুলে যাবে। বিভিন্ন রাজ্যের সঙ্গে আলোচনা করে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে সরকার।

কেবল যেসব জায়গায় সংক্রমণ খুব বেশি সেসব জায়গাতেই কঠোর লকডাউন জারি থাকবে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ সর্বাধিক ৮,৩৮০ জনে পৌঁছানোর মধ্যেই এ পরিকল্পনা জানাল সরকার।

এনডিটিভি জানায়, রোববার সন্ধ্যা পর্যন্ত ভারতে মোট সংক্রমণ ধরা পড়েছে ১ লক্ষ ৮৫ হাজার ৩৯৮ জনের। এ হিসাবে ভারত এখন বিশ্বে অষ্টম স্থানে উঠে এসেছে। আর গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মৃতের সংখ্যা ১৯৩। এ হিসাবে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়েছে।

সরকারি হিসাবমতে, ভারতে ৫ টি রাজ্যে ৮০ শতাংশের বেশি সংক্রমণ ঘটেছে। এগুলো হচ্ছে- মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, গুজরাট এবং মধ্যপ্রদেশ। আর ৬০ শতাংশের বেশি সংক্রমণ ঘটেছে মুম্বাই, দিল্লি এবং আহমেদাবাদসহ ৫ টি শহরে।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, অনেক জায়গাতেই তারা লকডাউন আরো কিছুটা তুলে নিতে পারবেন। কারণ, বহু রাজ্যেই সংক্রমণ কেবল শহুরে অঞ্চলের মধ্যেই সীমাবদ্ধ আছে।

ভারত সরকার তৃতীয় ধাপে লকডাউন শিথিলের আওতায় আন্তর্জাতিক ভ্রমণ চালু করাসহ মেট্রো সার্ভিস, সিনেমা হল, জিম, খেলাধুলা সবকিছু চালুর পরিকল্পনা জানিয়েছে। তবে এর দিনক্ষণ এখনো নির্ধারিত হয়নি।

পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানাবে সরকার। তাছাড়া, জারি থাকা রাত্রিকালীন কারফিউও দু’ঘণ্টা কমানো হবে।

শেয়ার