যশোরে নির্মাণ শ্রমিক আল-আমিন খুনের মামলায় আরো তিন আসামি আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে নির্মাণ শ্রমিক আল মামুন আল-আমিনকে খুনের মামলায় আরো তিন আসামিকে আটক করেছে পুলিশ। এর মধ্যে সিয়াম ও মাহিম নামে দুই আসামি আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। সোমবার অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আকরাম হোসেন জবানবন্দি শেষে তাদের জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন। জবানবন্দি দেয়া সিয়াম শহরতলীর ধর্মতলার ওয়াজেদ আলীর ছেলে এবং মাহিম আসাদের ছেলে। এই মামলায় অপর আপক ইসমাইল হোসেন শহরের খড়কি এলাকার মৃত রবিউল ইসলামের ছেলে।
সিয়াম ও মাহিম বলেছে, সাব্বির নামে এক যুবক মাদকের কারবার করেন। এ নিয়ে আল মামুন ওরফে আল আমিনের সাথে তার বিরোধের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায় গত ২৯ মে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে আল মামুন ওরফে আল আমিন, তার বন্ধু আরাফাত ও সাজিম যশোর শহরের স্টেডিয়াম এলাকার একটি বট গাছের নিচেয় বসে ছিল। এসময় সাব্বিরসহ কয়েকজন সেখানে যায়। তারা আল আমিনকে দেখেই দৌড়ে গিয়ে সাব্বির জড়িয়ে ধরে। এরপর অন্যরা তাকে এলোপাতাড়ি মারপিটসহ ছুরিকাঘাত করে। এরপর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কিছুক্ষণ পরে সে মারা যায়। এঘটনায় নিহতের পিতা আবুল বাসার বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় ১৩ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩জনকে আসামি করা হয়।
গত রোববার রাতে সিয়াম ও মাহিমকে কেশবপুর থেকে এবং ইসমাইলকে এমএম কলেজের সামনে থেকে আটক করে তদন্ত কর্মকর্তা কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের পরিদর্শক (অপারেশনস) আবু হেনা মিলন।

শেয়ার