যশোরে আক্রান্ত ১০০ জনের ৬৬ জনই সুস্থ, অন্যরাও আশঙ্কামুক্ত

এস হাসমী সাজু
যশোর জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এখন শতকের ঘরে। ১ হাজার ৯১৪টি নমুনা পরীক্ষা করে আক্রান্তের এই সংখ্যা পেয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। আক্রান্তদের মধ্যে চিকিৎসক, সেবিকাসহ স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন ৪১ জন। বাকি ৫৯ জন সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ। তবে স্বাস্থ্য বিভাগের দিকনির্দেশনা মেনে ও শরীরের অন্য জটিলতায় ওষুধ সেবনে সুস্থ হয়ে উঠেছে ৬৬ জন। অন্য যারা আক্রান্ত তাদের শারীরিক অবস্থাও উন্নতির দিকে। রাজধানী ও আশপাশের জেলার তুলনায় এ চিত্রে খুশি যশোরের স্বাস্থ্যবিভাগ, প্রশাসনসহ ফ্রন্টলাইনের যোদ্ধারা।
সিভিল সার্জন অফিস মতে, বর্তমানে জেলায় সর্বমোট ১ হাজার ৯১৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ১শ’ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন বলেন, ‘বিদেশফেরত আক্রান্তদের স্পর্শে এসে চিকিৎসক, সেবিকা ও স্বাস্থ্যকর্মীরা আক্রান্ত হয়েছেন। বাকিরা সামাজিক দূরত্ব না মানায় বা বিদেশফেরত স্বজনদের মাধ্যমে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে জেলা স্বাস্থ্যবিভাগের সঠিক তদারকির কারণে এবং আক্রান্তরা নিজে সচেতনতার কারণে স্বাস্থ্যবিভাগের দিক নির্দেশনা মেনে চলে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠেছেন।
সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীনের ভাষ্য মতে, রাজধানী ও আশপাশের জেলার তুলনায় এ চিত্র স্বস্তিদায়ক। যশোরে আক্রান্তরা সুস্থ হয়ে উঠায় এ জেলার বাসিন্দাদের আতঙ্কিত না হয়ে একটু সচেতন হলেই আরও ভালো অবস্থানে থাকা সম্ভব।
এছাড়া যশোরে আক্রান্ত শতকের ঘরে গেলেও কোন মৃত্যুর খবর নেই। এটা অবশ্যই একটা ভালো দিক হিসেবে নিচ্ছে জেলার সব শ্রেণিপেশার মানুষ। বিশেষ করে করোনা পজিটিভ এক নারীর সিজার করে ডা. নিলুফা ইসলাম এ্যামিলির নেতৃত্বের টিম প্রশংসা কুড়িয়েছেন। ওই নারী ও তার সদ্যজাত শিশু এখন সুস্থ। ঢাকার পরে যশোরে এই ধরনের অপারেশনে স্বাস্থ্যবিভাগের সুনাম বৃদ্ধি করেছে বলেও মনে করছেন এ জেলার সচেতন মানুষ।

শেয়ার