টিসিবির পণ্য ক্রেতাদের মাঝে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের নির্দেশ

ফাইল ফটো

সমাজের কথা ডেস্ক॥ করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে দেশে বেশকিছু স্থানে লকডাউন বা অবরুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যেই চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে শুরু হতে যাচ্ছে পবিত্র রমজান। করোনা ও আসন্ন রমজান মাসে নিত্যপণ্যের সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) মাধ্যমে কম মূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রি চলছে।
কিন্তু টিসিবির পণ্য ক্রয় করতে আসা ক্রেতারা সামাজিক দূরুত্ব বজায় রাখছেন না। এতে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বাড়ার শঙ্কা রয়েছে। তাই স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তা নিয়ে ডিলারদের ক্রেতাদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব তথা ৩ ফুট দরত্ব বজায় রাখা নিশ্চিতের নির্দেশ দিয়েছে টিসিবি।
বুধবার (৮ এপ্রিল) এ সংক্রান্ত একটি অফিস আদেশ জারি করা হয়েছে। আদেশে বলা হয়, সম্প্রতি করােনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে সরকারি নির্দেশনা অনুসারে স্বাস্থ্য বিধি ও করণীয় বিষয়ে কঠোরভাবে প্রতিপালন করা অত্যাবশ্যক।
এ কারণে টিসিবির নিয়োজিত ডিলারদেকে সাশ্রয়ী মূল্যে ভোক্তা সাধারণের কাছে পণ্য বিক্রয়কালে ক্রেতারা একে অপর থেকে ন্যূনতম তিন ফুট দূরত্ব বজায় রেখে পণ্য সংগ্রহের বিষয়টিও নিশ্চিত করতে হবে। বিষয়টি কঠোরভাবে প্রতিপালনের জন্য স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তা গ্রহণে সব ডিলারকে অবহিত করার জন্য অনুরােধ করা হলাে।
এদিকে করোনাভাইরাস ও আসন্ন পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে গত বুধবার (১ এপ্রিল) থেকে কম মূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রয় শুরু করেছে টিসিবি। প্রতি শুক্রবার বাদে আগামী ২০ মে পর্যন্ত পণ্য বিক্রি চলবে।
টিসিবি জানায়, ঢাকা মহানগরীতে ৫০টি, চট্টগ্রাম মহানগরীতে ১৬টি, অন্যান্য ৬টি বিভাগীয় শহরে প্রতিটিতে ১০টি করে ৬০টি এবং অবশিষ্ট ৫৬টি জেলা শহরে প্রতিটিতে চারটি করে ২২৪টিসহ মোট ৩৫০ জন ডিলারের নিজস্ব ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে টিসিবির পণ্য বিক্রয়ের কার্যক্রম চলছে।
এ কার্যক্রমের আওতায় প্রথামিকভাবে প্রতি ভোক্তা ৫০ টাকা কেজি দরে সর্বোচ্চ ৪ কেজি চিনি, ৮০ টাকা লিটার দরে সর্বোচ্চ ৫ লিটার সয়াবিন তেল, ৫০ টাকা কেজি দরে সর্বোচ্চ ২ কেজি মসুর ডাল বিক্রি করা হচ্ছে। পরবর্তীতে ছোলা ও খেজুরও বিক্রি করা হবে। প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলছে।

শেয়ার