বাগেরহাটে ২৯৭২ প্রবাসীর বাড়ির খোঁজে মাঠে নেমেছে প্রশাসন

বাগেরহাট প্রতিনিধি ॥ বাগেরহাট জেলায় করোনা আতংকে বুধবার সকাল পর্যন্ত বিশে^র ৩৮ দেশ থেকে বাড়ি ফেরা ৪ হাজার ২শ’ প্রবাসীর মধ্যে মাত্র ১ হাজার ২২৮ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। এছাড়া ৫২৫ জনের হোম কোয়ারেন্টিনের নির্ধারিত সময় পুর্ণ হওয়ায় তারা সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। তবে কোয়ারেন্টাইন না করা ২ হাজার ৯৭২ জন প্রবাসীর বাড়ি খুঁজে ফিরছেন স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ ও স্থানীয়জন প্রতিনিধিরা। এসব প্রবাসীর বাড়িতে টানান হচ্ছে লাল পতাকা। এ্ই বিপুল সংখ্যক প্রবাসী কোয়ারেন্টাইন না করায় জেলাজুড়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।
এদিকে বাগেহাট জেলায় ডাক্তার, নার্সসহ ১ হাজার ১৮৮ জন স্বাস্থ্যকর্মীর করোনাভাইরাস প্রতিরোধের জন্য মঙ্গলবার পর্যন্ত স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মাত্র ১৫০টি পিপিই পাঠিয়েছে। এসব পিপিইর মধ্যে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ৫০টি ও ৮টি উপজেলা হাসপাতালের প্রত্যেকটিতে ৫টি করে পিপিই দেয়া হয়েছে। বাগেরহাট জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. কে এম হুমায়ুন কবির জানান, ইমিগ্রেশন পুলিশের দেয়া তালিকা অনুযায়ী বাগেরহাট জেলার ৯টি উপজেলায় বিশে^র ৩৮ দেশ থেকে বাড়ি ফেরা ৪ হাজার ২ শত প্রবাসীর মধ্যে মাত্র ১ হাজার ২২৮ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। এছাড়া ৫২৫ জনের হোম কোয়ারেন্টিনের নির্ধারিত সময় পূর্ণ হওয়ায় তারা সুস্থ্য হয়ে বাড়ী ফিরেছেন। তবে কোয়ারেন্টাইন না করা ২ হাজার ৯৭২ জন প্রবাসীকে খুঁজতে বাড়ি খুজে ফিরছে স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ ও স্থানীয় জন প্রতিনিধিরা। বাগেহাট জেলায় ১৩৬ ডাক্তার, ২৪৭ নার্সসহ ১ হাজার ১৮৮ জন স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছে। মঙ্গলবার পর্যন্ত স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মাত্র ১৫০টি পিপিই পেয়েছি। এসব পিপিইর মধ্যে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ৫০টি ও ৮টি উপজেলা হাসপাতালের প্রত্যেকটিতে ৫টি করে পিপিই দেয়া হয়েছে। জেলা সিভিলসার্জন অফিসের কর্মরত চিকিৎসকদেরও পিপিই দেয়া হয়েছে।

শেয়ার