লকডাউন না মানলে কড়া আইনি ব্যবস্থার নির্দেশ মোদীর

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ভারতে বর্তমান লকডাউন পরিস্থিতি যারা মানবেন না তাদের বিরুদ্ধে কড়া আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে স্পষ্ট করে জানিয়েছে প্রশাসন।
ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে রাজ্যগুলিকে নোটিস দিয়ে বলা হয়েছে, সরকারি নির্দেশের লঙ্ঘন চোখে পড়লে ১৮৮ ধারা অনুযায়ী, ২০০ টাকা জরিমানা-সহ ১ মাসের জেল হতে পারে নিয়ম লঙ্ঘনকারীর।
আর তার জন্য অন্য কারও জীবন ও নিরাপত্তা বিঘিœত হলে, সেক্ষেত্রে জেল হতে পারে ছ’মাস পর্যন্ত। দিতে হতে পারে ১০০০ টাকা জরিমানাও।
ভারতে গত কয়েকদিনের মধ্যেই লাফিয়ে বেড়েছে করোনাভাইরাস সংক্রমণ।সরকারি তথ্য দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, ৪০০ জনেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে এ প্রাণঘাতী ভাইরাসে। অনেকেই বলছেন, মানুষ সচেতন না হলে এ সংক্রমণ আরও ছড়াবে।
ফলে ভারতের সাম্প্রতিক পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে সবাইকে লকডাউন মেনে চলার অনুরোধ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সোমবার টুইটে তিনি লিখেছেন, “অনেকে এখনও লকডাউনকে পাত্তা দিচ্ছেন না। দয়া করে নিজেকে বাঁচান, আপনার পরিবারকে বাঁচান, এ নির্দেশগুলোকে গুরুত্ব দিয়ে অনুসরণ করুন। আমি রাজ্য সরকারগুলোকেও অনুরোধ করছি যাতে সব রাজ্যেই এসব নির্দেশিকা মেনে চলার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।”
প্রধানমন্ত্রী এ উদ্বেগ প্রকাশের পরই একটি সরকারি বিজ্ঞপ্তিতে লকডাউন লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়।
কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী, আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত মহারাষ্ট্র, কেরালা, দিল্লি, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা, কর্নাটক, তেলেঙ্গানা, রাজস্থান, অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, পাঞ্জাব, জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ, পশ্চিমবঙ্গ, চ-ীগড়, ছত্তিশগড়, হিমাচলপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, ওড়িশা, পুদুচেরি এবং উত্তরাখ-ে চলবে না কোনও ট্রেন, চলবে না মেট্রোও। পাশাপাশি বন্ধ থাকবে আন্তঃরাজ্য বাস পরিষেবাও। শপিং মল, সিনেমা হল, স্কুল, কলেজ এবং জিমও বন্ধ বিভিন্ন রাজ্যে।
সোমবার বিকাল ৫টা থেকে পশ্চিমবঙ্গেও লকডাউনে বন্ধ থাকবে সব। শুধু চালু থাকবে জরুরি এবং অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবা। এ রাজ্যে লকডাউন ২৭ মার্চ পর্যন্ত চলবে বলে জানিয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার।

শেয়ার