লোহাগড়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান বদর হত্যার ঘটনায় মামলা, গ্রেফতার-১

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি॥ নড়াইলের লোহাগড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বদর খন্দকার(৪০)কে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহত বদর খন্দকারের স্ত্রী নাজনীন বেগম বাদি হয়ে ১৬জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৩/৪ জনের নামে মঙ্গলবার মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ একজনকে আটক করেছে।
নিহতের পরিবার জানায়, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন, ব্যবসায়িক বিরোধ সহ এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রতিপক্ষের সাথে বদর খন্দকারের বিরোধ চলছিল। গত সোমবার সন্ধ্যার আগে চরবকজুড়ি গ্রামের খন্দকার ময়ের আলীর ছেলে লোহাগড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা বদর খন্দকার নিজ ইটভাটা থেকে মোটরসাইকেলে নিজ বাড়িতে ফেরার পথে টিচরকালনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে পৌঁছালে সন্ত্রাসীরা তার গতিরোধ করে। এরপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপায়। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেবার পথে তার মৃত্যু হয়। গত মঙ্গলবার বিকালে লোহাগড়া ইউনিয়ন পরিষদ গোরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।
পুলিশ জানায়, গত মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় লোহাগড়া থানার ওসি মোঃ আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে কাশিয়ানী থানার ঘোনাপাড়ার চরপাড়া থেকে মামলার আসামী চরকালনা গ্রামের খোকা মোল্যার ছেলে মুন্না মোল্যা(২৫)কে গ্রেফতার করা হয়েছে। লোহাগড়া থানার ওসি জানান, গ্রেফতারকৃত মুন্নাকে বুধবার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্য আসামীদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

শেয়ার