টাইলস মিস্ত্রিকে মারপিটের জের যশোরে সন্ত্রাসী চায়না সাগরকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ তুচ্ছ ঘটনায় টাইলস মিস্ত্রিকে মারপিটের জের ধরে যশোরে সন্ত্রাসী চায়না সাগরকে গণধোলাই দিয়েছেন স্থানীয়রা। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। শনিবার দুপুরে শহরের বড়বাজারে এঘটনা ঘটে। রোববার এ ঘটনায় যশোর কোতোয়ালি থানায় ৬ জনের নামে মামলা হয়েছে। পুলিশ চায়না সাগরকে কারাগারে প্রেরণ করেছে।
আসামিরা হলো, শহরের পশ্চিম বারান্দীপাড়া কদমতলা এলাকার রবিউল ইসলামের ছেলে চায়না সাগর, মনির হোসেনের ছেলে রিফাদ হোসেন, বারান্দীপাড়া বউবাজার এলাকার হামিদ আলী ওরফে আব্দুল হক এবং তার দুই ছেলে ইসমাইল হোসেন ও ইউসুফ আলী, সোহরাব হোসেনের ছেলে দিপু।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, সদর উপজেলার ধোপাখোলা গ্রামের জোলাপাড়ার আব্দুল আমিনের ছেলে রবিউল ইসলাম একজন টাইলস মিস্ত্রি। তিনি যশোর শহরের বড় বাজার মাছ বাজার এলাকার শাহাজানের ৪ তলা ভবনে টাইলস বসানোর কাজ করছিলেন। গত শনিবার বেলা ১১টার দিকে ভ্যানে করে টাইলস নিয়ে আসেন ভবন মালিক। পরে ওই টাইলস ভ্যান থেকে ভবনে নেয়ার সময় আসামি আব্দুল হকের সাথে তার সামান্য ধাক্কা লাগে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আব্দুল হক তাকে গালিগালাজ করেন। প্রতিবাদ করলে তিনি হুমকি দেন। এর কিছুক্ষণ পর আসামিরা চাকু, লোহার রড ও জিআই পাইপ নিয়ে আচমকা রবিউলের উপর হামলা চালায়। আব্দুল হকের হুকুমে অন্য আসামিরা তাকে বেধড়ক মারধর করে এবং তাদের ছুরিকাঘাতে রবিউল ইসলাম আহত হন। পরে স্থানীয় ছুটে এসে রবিউলকে উদ্ধারসহ সন্ত্রাসী চায়না সাগরকে গণধোলাইয়ের পর পুলিশে দেয়।

শেয়ার