যশোরে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা শীর্ষক সেমিনার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে ‘হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। যশোর হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক অধ্যক্ষ হোমিও চিকিৎসক খোরশেদ আলমের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। ডা. খোরশেদ আলম স্মৃতি সংসদ যশোরের আয়োজনে শহরের এক অভিজাত হোটেলের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য এমপি বলেন, সবার কাছে স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিতে হলে অল্টারনেটিভ মেডিসিন (হোমিওপ্যাথি, ইউনানি এবং আয়ুর্বেদিক) অর্থাৎ বিকল্প চিকিৎসাব্যবস্থার প্রসার ঘটাতে হবে। আর এ জন্যই বাংলাদেশ এই চিকিৎসা ও ওষুধ ব্যবস্থাকে আইনগত স্বীকৃতি দিয়েছে।
তিনি আরো বলেন, বহুল প্রচলিত অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসার বাইরে অল্টারনেটিভ মেডিসিন কয়েক হাজার বছরের পুরনো। বাংলাদেশে ঐতিহ্যগতভাবে এই চিকিৎসা ব্যবস্থা প্রচলিত। সরকার এখন এর ওপর আরো জোর দিচ্ছে।
সভাপতিত্ব করেন ডা. খোরশেদ আলম স্মৃতি সংসদ যশোরের সভাপতি রওশন আরা জামান রুবী। অতিথি ছিলেন যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন মহাবিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আফসার আলী, যশোর সরকারি সিটি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবু তোরাব মো. হাসান, সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর সেখ আবুল কাওসার, যশোর হোমিওপ্যাথিক হলেজের অধ্যক্ষ হাফিজুর রহমান, যশোর রেলস্টেশন মাদরাসার অধ্যক্ষ আনোয়ারুল করিম, ঝিনাইদহ স্বাস্থ্য ম্যাটার্সের সহকারী পরিচালক ডা. আক্তারুজ্জামান, প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, ডা. একেএম মহিদুর রহমান প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য দেন ডা. খোরশেদ আলমের ছেলে ডা. এসএম আব্দুল্লাহ। সঞ্চালনা করেন যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন মহাবিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক জিল্লুল বারী।

শেয়ার