সোনা চোরাচালান মামলায় যশোরে নারীসহ দু’জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ সোনা চোরাচালান মামলায় যশোরে এক নারীসহ দুইজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদ- ও অর্থদ- দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ইখতিয়ারুল ইসলাম মল্লিক এ রায় দিয়েছেন। দ-প্রাপ্তরা হলেন, বেনাপোল পোর্ট থানার দৌলতপুর গ্রামের কাশেম আলীর স্ত্রী সফুরা খাতুন ও ভবেরবেড় গ্রামের ইব্রাহিম হোসেনের ছেলে ই¯্রাফিল হোসেন। সরকার পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেছেন পিপি এম ইদ্রিস আলী।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, বেনাপোলের বিজিবি ২০১৮ সালের ১০ আগস্ট সকাল সাড়ে ৬টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শিকড়ি রাস্তা দিয়ে ভারতে সোনা পাচার হচ্ছে বলে খবর পেয়ে অভিযানে যায়। শিকড়ি বটতলায় অবস্থানকালে ভ্যানযোগে দুইজন যাত্রী দেখে তাদের গতিরোধ করে। এ সময় সফুরা খাতুনের ব্যাগ থেকে একটি সোনার বার ও ই¯্রাফিল হোসেনের কোমরে বাধা ১০ পিচ সোনার বার উদ্ধার করা হয়। যার ওজন ২ কেজি। এ ব্যাপারে বিজিবির হাবিলদার মোজাম্মেল হোসেন বাদী হয়ে ওই দুইজনের বিরুদ্ধে বেনাপোল পোর্ট থানায় চোরাচালান দমন আইনে মামলা করেন। তদন্ত শেষে ওই দুইজনকেই অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দেন তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শরীফ হাবিবুর রহমান। স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে সোনা চোরাচালানের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক তাদের প্রত্যেককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদ- ও ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানার আদেশ দিয়েছেন। দ-প্রাপ্ত দুইজন কারাগারে আটক আছেন।

শেয়ার