পাইকগাছায় বাল্যবিবাহ বন্ধ করলো কিশোরী ক্লাব

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥ পাইকগাছায় ৭ম শ্রেণি পড়–য়া কিশোরীর বাল্যবিবাহ রোধ করেছে কিশোরী ক্লাবের কিশোরীরা। সামাজিক দায়িত্বপূর্ণ এ কাজটি করেছে উপজেলার লস্কর ইউনিয়নের খড়িয়া কিশোরী ক্লাবের কিশোরীরা। জানা গেছে, ভড়েঙ্গা গ্রামের জনৈক ব্যক্তির মেয়ে ও খড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে একই বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির এক ছাত্র উত্ত্যক্ত করে আসছিল। যার ফলে মেয়ের পিতা-মাতা তাকে বিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সে অনুযায়ী খালাতো ভাইয়ের সাথে মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার জন্য ছেলের পিতা-মাতার সাথে যোগাযোগ করেন মেয়ের অভিভাবকরা। যোগাযোগের একপর্যায়ে ছেলের অভিভাবকরা সোমবার মেয়েদের বাড়িতে আসে এবং বিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মেয়েকে মঙ্গলবার তাদের বাড়িতে নেওয়ার প্রস্তুতি নেয়। বিষয়টি জানতে পেরে মেয়ের ছোট বোন সলিডারিডাড নেটওয়ার্ক এশিয়া ও উত্তরণ সফল প্রকল্পের আওতাধীন উত্তর খড়িয়া কিশোরী ক্লাবের কিশোরীদের বিষয়টি অবহিত করে। এরপর শ্রাবন্তী মন্ডলের নেতৃত্বে কিশোরী ক্লাবের ৮ সদস্যের একটি টিম সকালে ওই মেয়ের বাড়িতে গিয়ে বাল্যবিবাহের সকল প্রস্তুতি বন্ধ করে দেয়। মেয়ের পিতা-মাতা কোন ভাবেই মেয়েকে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগে বিয়ে দিবেন না মর্মে কিশোরীদের আশ্বস্ত করে। পরে কিশোরীরা বিষয়টি বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অবহিত করে। এ খবর জানতে পেরে মঙ্গলবার দুপুরে সফল প্রকল্পের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মো. ইকবাল হোসেন ক্লাব পরিদর্শনে গিয়ে বাল্যবিবাহের মত সামাজিক অপরাধ প্রতিরোধে অগ্রণী ভূমিকা রাখার জন্য কিশোরী ক্লাবের সদস্যদের অভিনন্দন জানান।

শেয়ার