অভয়নগরে চরমপন্থি পরিচয়ে চাঁদা দাবি, অস্ত্র-গুলিসহ দু’জন আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরের অভয়নগর থেকে চরমপন্থি সংগঠন নিউ বিপ্লবী কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য পরিচয়ধারী দুই সন্ত্রাসীকে অস্ত্র-গুলিসহ আটক করেছে পুলিশ। রোববার ভোর রাতে উপজেলার আন্দা গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়। এদিনই তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। আটককৃতরা হলো, অভয়নগর উপজেলার আন্দা গ্রামের সমর মল্লিকের ছেলে কুমারেশ মল্লিক ও জগদীশ চন্দ্র সিকদারের ছেলে হীরামনি সিকদার। রোববার দুপুরে যশোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খ-সার্কেল জামাল আল নাসের, ডিবি ওসি মারুফ আহম্মেদ, ইন্সপেক্টর মশিউর রহমানসহ উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, আসামিরা চরমপন্থি নিউ বিপ্লবী কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য পরিচয় দিয়ে এলাকায় মাছের ঘের, মানুষের জমি দখল, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ১ ফেব্রুয়ারি সমলডাঙ্গা বিলের পানি সেচের ইজারাদার মনিরুজ্জামানদের উপর সশস্ত্র হামলা চালায় দিপংকর বাহিনী। ওই ঘটনায় সন্ত্রাসী প্রুপের দেবু সরকার ওরফে দেবু মেম্বরসহ ৬ জনকে আটক করে ডিবি পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে ৩টি অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।
তারই সূত্র ধরে রোববার ভোর ৪টার দিকে কুমারেশকে আটক করা হয়। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে অভয়নগর থানাধীন আন্দা গ্রামের আদিত্য রায়ের বাড়িতে ধানের গোলার ভিতর থেকে কুমারেশের দেখানো মতে ১টি ওয়ান শ্যুটারগান, ১টি রিভলবার ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি কুমারেশের দেয়া তথ্য মতে হীরামনিকে তার বাড়ি থেকে আটক করা হয়।
এঘটনার মামলায় আটক ২ জনসহ মোট ৫জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। মামলায় ওই গ্রামের গণেশ মল্লিকের ছেলে দিপংকর, একই গ্রামের মহিতোষ ও বিবেক মাস্টারকে পলাতক দেখানো হয়েছে।
এদিকে কুমারেশ ও হীরামনিকে অস্ত্র-গুলিসহ আটকের পর অভয়নগর থানা পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেছে। ওই মামলায় রোববার তাদের আদালতে সোপর্দ করা হলে আটক কুমারেশ অস্ত্র-গুলিসহ আটক ও সন্ত্রাসী কর্মকা-ে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন। জবানবন্দি শেষে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট গৌতম মল্লিক তাদের জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন।

শেয়ার