অভয়নগরে নিশান হত্যার ৫ বছর পুলিশের চূড়ান্ত রিপোর্টে হতাশ পিতার আদালতে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের অভয়নগর উপজেলার মোয়াল্লেমতলা গ্রামের আরিফুল ইসলাম নিশান হত্যার ঘটনায় আবারো ৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। হত্যাকা-ের ৫ বছর পর গতকাল বৃহস্পতিবার নিহতের পিতা সুজা উদ্দিন মোল্যা বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন। অভয়নগর আমলী আদালতের বিচারক জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম অভিযোগটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন।
আসামিরা হলো, অভয়নগর উপজেলার রাজঘাট গ্রামের মৃত ইসমাইল শেখের ছেলে আতিউর রহমান ওরফে আতা ভাই, ধ্রুবপদ দত্তের দুই ছেলে কাজল দত্ত ও নয়ন দত্ত, মৃত আক্কাস আলী মিস্ত্রীর ছেলে শামিম হোসেন ও মৃত খোকন ওরফে খোকার ছেলে শহিদুল ইসলাম।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, মোয়াল্লেমতলা গ্রামের আরিফুল ইসলাম নিশানের একই বাজারে একটি দোকান ছিল। ২০১৪ সালের ২২ জুন রাতে দোকান বন্ধ করে নিশান বাড়ি ফিরছিল। পথিমধ্যে আব্দুল সরদারের বাড়ির সামনে পৌঁছালে আসামিরা তার পথরোধ করে কুপিয়ে জখম করে। এ সময় নিশানের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে আসামিরা তাকে ফেলে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় নিশানকে উদ্ধার করে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎক মৃত ঘোষণা করেন।
ওই সময় অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে অভয়নগর থানায় একটি হত্যা মামলা করা হয়। তদন্ত শেষে বিভিন্ন সময়ে আটক কয়েকজনকে অব্যাহতি চেয়ে ২০১৫ সালের ৩০ জুন আদালতে চূড়ান্ত রিপোর্ট দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মজিবর রহমান। ২০১৬ সালের ১৯ জানুয়ারি চূড়ান্ত রিপোর্ট গৃহীত করে মামলা নথিজাত করা হয়। পরবর্তীতে নিহতের পিতা খোঁজ নিয়ে ও স্বাক্ষীদের কাছে জানতে পারেন আসামিরা নিশানকে কুপিয়ে হত্যা করেছিল। তাই তিনি আদালতে এ মামলা করেছেন।

শেয়ার