যশোরে আঞ্চলিক ইজতেমার দ্বিতীয় দিন
আজ জুম্মার নামাজে অংশ নেবে লাখো মানুষ

এস হাসমী সাজু
হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসল্লির অংশগ্রহণে যশোরের উপশহরে শুরু হয়েছে আঞ্চলিক জোড় ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা। আজ ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে শুক্রবার সর্ববৃহত জুম্মার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। নামাজে জেলার রাজনৈতিক, সামাজিক, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেবে। এ দিন আছর বাদ যৌতুক বিহীন বিবাহর ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। আগামীকাল শনিবার সকাল ১০টায় ভারতের দারুল উলুম দেওবন্ধ মাদ্রাসার মুরব্বি মাওলানা আব্দুর রহমানের আখরি মোনাজাতের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা। বিষয়টি নিশ্চিত করেন ইজতেমা কমিটির প্রধান জিম্মাদার মাওলানা নাসির উল্লাহ।
এদিকে ইজতেমার প্রথমদিনে ফজরের পরে রিসালত, তকদির ও নবী (সা.) জীবনী আমল ও মানুষ কিভাবে অনুস্মরণ করতে হবে তার উপরে আমবয়ান করেন ভারতের সবচেয়ে বড় মাদ্রাসা দারুল উলুম দেওবন্ধ মাদ্রাসার মুরব্বি মাওলানা আব্দুর রহমান (তর্জমায় তাবলিগের মাওলানা আব্দুল মতিন)। জোহরবাদ বয়ান করেন পাকিস্তানের মাওলানা সফির আহম্মেদ (তর্জমায় ছিলেন তাবলিগের মাওলানা আব্দুর রশিদ)। আসর বাদ বয়ান করেন পাকিস্তানের মাওলানা হাসমত (তর্জমায় ছিলেন তাবলিগের মাওলানা জাকারিয়া)। বাদ মাগরিব বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আব্দুর রহমান (তর্জমায় তাবলিগের মাওলানা আব্দুল মতিন)।
আজ শুক্রবার আল্লাহুর হুকুম, ইলম (শিক্ষা), আমল ও দাওয়াতের মেহেনত সম্পর্কে বয়ান করবেন, ঢাকা কাকরাঈল মসজিদের ইমাম মুফতি মাওলানা জিয়াউল হক। জুম্মার আগে ও পরে আমবয়ান করবেন ভারতের দারুল উলুম দেওবন্ধ মাদ্রাসার মাওলানা আব্দুর রহমান (তর্জমায় তাবলিগের মাওলানা আব্দুল মতিন)।
পরিদর্শনকালে প্রধান জিম্মাদার মাওলানা নাসির উল্লাহ জানান, ‘জোড় ইজতেমায় আগত মুসল্লিরা সারাদিন ইবাদত বান্দাগির মধ্যদিয়ে সময় পার করছেন।
এদিকে ইমাম পরিষদের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের মাঝে ৮০ লিটার বিশুদ্ধ খাবার পানি বিতরণ করা হয়েছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি মাওলানা আনোয়ারুল করীম যশোরী, সেক্রেটারি মাওলানা বেলায়েত হোসেন, মাওলানা আব্দুল কাদের, রফিকুল ইসলামসহ সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।