এসএ গেমস: ক্রিকেটের ফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা

সমাজের কথা ডেস্ক॥ প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারানোর পর বাকি পথটা ছিল অনায়াস। বাংলাদেশের মেয়েরা এগিয়েছে প্রত্যাশিত দাপুটে পারফরম্যান্সেই। নেপালকে গুঁড়িয়ে নিশ্চিত করেছে এসএ গেমস ক্রিকেটের ফাইনাল। সোনার পদক এখন সালমাদের নাগালেই।
এসএ গেমসে মেয়েদের ক্রিকেটে নেপালকে ১০ উইকেটে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। টানা দ্বিতীয় জয়ে নিশ্চিত করেছে ফাইনাল।
নেপালের পোখারায় বুধবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৫০ রানেই অলআউট হয়ে যায় নেপাল। রান তাড়ায় ৭.৪ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়ে জিতে যায় বাংলাদেশ।
প্রাথমিক পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে বৃহস্পতিবার মালদ্বীপের কাছে হারলেও ফাইনালে খেলবে বাংলাদেশ। তবে ক্রিকেটীয় অনিশ্চয়তা মাথায় রাখলেও টুর্নামেন্টের দুর্বলতম দল মালদ্বীপের কাছে হারার কোনো কারণ নেই।
রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে নেপালের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয়ের পথে ছোটা শুরু প্রথম ওভার থেকেই। কাজল শ্রেষ্ঠাকে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে উইকেট এনে দেন জাহানারা আলম। পরে আরেক ওপেনার সিতা রানা মাগারকেও বোল্ড করে দেন এই পেসার।
তৃতীয় উইকেটে ২০ রানের জুটিতে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন সনু খাড়কা ও অধিনায়ক রুবিনা ছেত্রি। ১২ রান করা সনুকে আউট করে জুটি ভাঙেন ফাহিমা খাতুন। সর্বোচ্চ ১৩ রান আসে রুবিনার ব্যাট থেকে। তাকে ফেরান রাবেয়া খান।

নেপালের শেষ ছয় ব্যাটারের কেউই দুই অঙ্কে পৌঁছাতে পারেননি। পুরো ইনিংসে রানের খাতাই খুলতে পারেননি পাঁচজন।
৪ ওভারে ৮ রান খরচায় ৪ উইকেট নেন রাবেয়া। ৩ ওভারে ২ রান দিয়ে জাহানারার শিকার ২ উইকেট। রান তাড়ায় কোনো বেগ পেতে হয়নি বাংলাদেশকে। দুই ওপেনার আয়েশা রহমান ও মুর্শিদা খাতুনের জুটিই জিতিয়ে দেয় দলকে।
২২ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় ২৬ রানে অপরাজিত থাকেন আয়েশা। ২৩ রানে অপরাজিত থাকা মুর্শিদার ইনিংসে চার ৪টি।
জাতীয় দলের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে দারুণ বোলিংয়ে ম্যাচের সেরা হয়েছেন রাবেয়া।
মেয়েদের ক্রিকেটে দিনের আরেক ম্যাচে মালদ্বীপকে ২৪৯ রানে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ২০ ওভারে লঙ্কানদের ২৭৯ রানের জবাবে মালদ্বীপ গুটিয়ে যায় ৩০ রানে।
শুক্রবার নেপাল ও শ্রীলঙ্কা ম্যাচের বিজয়ী দল ফাইনালে খেলবে বাংলাদেশের বিপক্ষে। সোনার পদকের লড়াই রোববার।

শেয়ার