বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদক তৈরি করায় ২ অধ্যাপক গ্রেপ্তার

সমাজের কথা ডেস্ক॥ যুক্তরাষ্ট্রের আরকানস অঙ্গরাজ্যের দুই অধ্যাপক বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদক তৈরির অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন।
শুক্রবার হেনডারসন স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়নের অধ্যাপক টেরি ডেভিড বেইটম্যান (৪৫) ও ব্রডলি অ্যালেন রৌল্যান্ডকে (৪০) এ অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে।

এই দুজনকে মাদক তৈরির সাজসরঞ্জাম ব্যবহার করে মেথামফেটামিন তৈরির অভিযোগের মুখোমুখি হতে হবে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন ক্লার্ক কাউন্টির শেরিফ জ্যাসন ওয়াটসন।
তিনি জানিয়েছেন, এ দুই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়টির পুলিশ প্রধান তদন্ত শুরু করেছিলেন।
হেনডারসন স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখপাত্র টিনা হলের দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী, বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়েন্স সেন্টারে অনির্ধারিত রাসায়নিকের গন্ধ পাওয়ার অভিযোগের তিন দিন পর ১১ অক্টোবর থেকে বেইটম্যান ও রৌল্যান্ড বাধ্যতামূলক ছুটিতে ছিলেন।
প্রাথমিক পরীক্ষায় ওই সেন্টারে বেনজাইল ক্লোরাইডের উচ্চমাত্রার উপস্থিতির ইঙ্গিত মিলে বলে টিনা জানিয়েছেন। এই রাসায়নিকটি মেথামফেটামিন সংশ্লেষণে ব্যবহার করা যায়। ঘটনার বিষয়ে তদন্ত অব্যাহত আছে বলে শেরিফ ওয়াটসন জানিয়েছেন।
সহযোগী অধ্যাপক ও স্নাতক পর্যায়ের গবেষণা পরিচালক বেইটম্যান ১০ বছর ধরে হেনডারসন স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ে সঙ্গে যুক্ত আছেন। আর রৌল্যান্ড ২০১৪ সাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে রসায়নের সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে আছেন।
ঘটনার বিষয়ে মন্তব্যের জন্য তাদের অনুরোধ করা হলেও তারা সাড়া দেননি বলে জানিয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট।
মেথামফেটামিন উৎপাদন একটি গুরুতর অপরাধ। এ অপরাধে ৪০ বছর পর্যন্ত কারাদ- হতে পারে আর মাদক তৈরির সাজসরঞ্জাম ব্যবহারের অপরাধে ২০ বছর পর্যন্ত কারাদ- হতে পারে বলে আরকানসয়ের একটি আইনি প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে।

শেয়ার