রাত পোহালেই যশোর আ’লীগের দুই ইউনিটের সম্মেলন
শহর জুড়ে উৎসবের আমেজ, বেড়েছে তৃণমূলের কদর

দেবু মল্লিক
রাত পোহালেই যশোর সদর উপজেলা ও শহর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। যশোর শহরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানের এই সম্মেলনকে ঘিরে ইতোমধ্যে যশোরে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। শহরের মোড়ে মোড়ে তৈরি করা হয়েছে প্রয়াত নেতাদের নামে তোরণ। সম্মেলনের মাধ্যমে নেতৃত্বে আসতে চাওয়া নেতারা সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত কাউন্সিলরদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন। আর তৃণমূল নেতাদের দাবি ভোটের মাধ্যমে হোক আগামীর নেতৃত্ব নির্বাচন।
জানা যায়, দীর্ঘ ১৬ বছর পর যশোর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন হতে যাচ্ছে। সম্মেলনের তারিখ ঘোষণার পর থেকে নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ দেখা যাচ্ছে। প্রতিদিনই যশোর জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের ভিড় হচ্ছে। ইতোমধ্যে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হতে ছয় নেতা প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছেন। এর মধ্যে সভাপতি প্রার্থী হিসেবে বর্তমান সভাপতি মোহিত কুমার নাথ ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী সাংগঠনিক সম্পাদক শাহারুল ইসলাম বেশ ভাল অবস্থানে রয়েছেন। এছাড়া সভাপতি পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান মিন্টু ও জেলা কৃষক লীগের সহ-সভাপতি শেখ আব্দুল মতলেব বাবু এবং সাধারণ সম্পাদক পদে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবু তালেব ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলিমুজ্জামান মিলন প্রার্থী হিসেবে মাঠে আছেন।
আর শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ ও সাধারণ সম্পাদক পদে জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক এসএম মাহমুদ হাসান বিপু প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। প্রতিদিনই তারা যৌথভাবে শহরের ৯টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলরদের কাছে ভোট চাচ্ছেন। এছাড়া শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে কামাল হোসেন ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা লুৎফুর কবির বিজুও প্রার্থী হয়েছেন।
এদিকে, এই দুই ইউনিটের সম্মেলনকে সামনে রেখে যশোরে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বইছে। যারা সম্মেলনের দিন সরাসরি ভোটের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব চান।
যশোর শহর ঘুরে দেখা গেছে, দড়াটানা, চৌরাস্তা, চারখাম্বা, মণিহার, আরএন রোড, জজ কোর্ট মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় আওয়ামী লীগের সাবেক নেতাদের নামে তোরণ তৈরি করা হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে জ্বলছে বিজলী বাতি।
যশোর শহর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী শহিদুল হক শাহিন বলেন, আমরা প্রতিটি ওয়ার্ডের ডেলিগেট ও কাউন্সিলরদের কার্ড দিয়ে দিয়েছি। ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের মাধ্যমে এই কার্ড বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া সম্মেলন সফল করতে যা যা করা দরকার সব ধরনের প্রস্তুতি আমরা নিয়েছি।
যশোর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহিত কুমার নাথ বলেন, নানা প্রতিকূলতার কারণে যথা সময়ে সম্মেলন করা সম্ভব হয়নি। তবে দীর্ঘদিন পর সম্মেলন হওয়ায় নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ বেড়েছে। ইতোমধ্যে সম্মেলনের মঞ্চ তৈরিসহ সবধরনের প্রস্তুতি প্রায় শেষ। আশা করছি শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমূখর পরিবেশে সম্মেলন শেষ হবে।