চুড়ামনকাটিতে সেই যুবতীর গ্রাম্য আদালতে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর সদর উপজেলার চুড়ামনকাটিতে গোসলের দৃশ্য ইন্টারনেটে ভাইরালের হুমকি দিয়ে ধর্ষণের শিকার সেই যুবতী অবশেষে গ্রাম্য আদালতে মামলা করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করে গ্রাম্য আদালতের বিচারক চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মুন্না জানান, আগামী ২১ নভেম্বর দুই পক্ষের শুনানি ও তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। ওই যুবতী জানিয়েছেন, গ্রাম্য মাতব্বরদের কাছে সুষ্ঠু সমাধান না পেয়ে তিনি গ্রাম্য আদালতের মামলা করেছেন।
ওই যুবতী জানিয়েছেন, হিটু ব্ল্যাকমিইলিং করে তিন বছর ধরে তার সতীত্ব হরণ করে। অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিয়ের আশ্বাসে বাচ্চা নষ্ট করায়। এখন বিয়ে করতে অস্বীকার করছে। হিটু অন্যত্র বিয়ে করতে যাচ্ছে এমন খবরে গত ৩১ অক্টোবর তার বাড়িতে অবস্থান করা হয়। ওই সময় চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আনিসুর রহমানসহ আরো কয়েকজন বিয়ের আশ্বাস দিয়ে তাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেন। কিন্তু পরে তারা অজ্ঞাত কারণে কথা রাখেননি। ফলে গত ৭ নভেম্বর বিয়ের দাবিতে অভিযুক্ত হিটুর বাড়িতে দ্বিতীয়বারের মতো অবস্থান করা হয়। পরে গ্রামের মাতব্বর ইসহাক আলী গাজীসহ কয়েককজন ওই বাড়িতে গিয়ে তাকে বউ করে ঘরে তুলে নিতে হিটুর পিতা-মাতাকে বলেন। কিন্তু তারা দুই দিনের সময় নিয়ে আর কোন যোগাযোগ করেননি। অবশেষে কোন উপায় না পেয়ে বুধবার চুড়ামনকাটির গ্রাম্য আদালতে মামলা করা হয়েছে। এখানে তিনি সঠিক বিচার পাবেন বলে আশাবাদী। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো জানান, থানা মামলা করে চালানোর মতো সামর্র্থ্য তাদের নেই। গ্রাম্য আদালতে সঠিক বিচার না পেলে থানায় মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন।

শেয়ার