চৌগাছা পুলিশের অভিযানে মানব পাচার চক্রের তিন সদস্য আটক

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি ॥ যশোরের চৌগাছা থানা পুলিশের অভিযানে মানব পাচার চক্রের তিন সদস্য আটক হয়েছে। গত ৯ ও ১০ নভেম্বর চৌগাছা ও শার্শা উপজেলা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মানব পাচার প্রতিরোধ আইনে মামলা হয়েছে।
থানা সূত্রে জানা গেছে, গত ৯ নভেম্বর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার ওসি তদন্ত উত্তম কুমার উপজেলার মাশিলা গ্রামে অভিযান চালায়। এ সময় মাশিলা গ্রামের ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন থেকে মানব পাচার চক্রের সদস্য ভারতের কাশিমিয়া থানার পুলিশ চেক পোস্ট সংলগ্নের বাসিন্দা বেলায়েত খাঁনের ছেলে ইয়াহিয়া খাঁন (১৮) ও চৌগাছার মাশিলা গ্রামের মৃত নরেন হালদারের ছেলে রতন হালদারকে (৪৮) আটক করে। তাদের স্বীকারোক্তিতে ১০ নভেম্বর অভিযান চালিয়ে যশোরের শার্শা উপজেলার টেংরালী গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে রেজাউল ইসলামকে (৫০) আটক করে পুলিশ। আটককৃতদের জেল হাজতের মাধ্যমে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মানব পাচার প্রতিরোধ আইনে মামলা হয়েছে। মামলা নং-৯, তারিখ ১১-১১-২০১৯।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি তদন্ত উত্তম কুমার বলেন, বরিশাল জেলার সুমি খাতুন (১৮) নামে একটি মেয়েকে পাচারের উদ্দেশ্যে চৌগাছার সীমান্তবর্তী গ্রাম মাশিলায় নিয়ে আসা হয়। খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে দুইজনকে হাতে-নাতে আটক করার পাশাপাশি পাচারের শিকার সুমি খাতুনকে উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীতে আরও এক আসামিকে পুলিশ আটক করতে সক্ষম হয়েছে। মামলার অন্য আসামীদেরকেও আটকের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।

শেয়ার