র‌্যাঙ্কিংয়ে ঢুকেই ৩৮ নম্বরে নাঈম

সমাজের কথা ডেস্ক॥ অভিষেক সিরিজে মোহাম্মদ নাঈম শেখের ভালো করার ছাপ পড়েছে র‌্যাঙ্কিংয়ে। তরুণ এই বাঁহাতি ওপেনার জায়গা করে নিয়েছেন ৩৮ নম্বরে। আাইসিসি টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে তার ওপরে আছেন শুধু অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ম্যাচে নাঈমের ব্যাট থেকে আসে ২৬ রান। পরের ম্যাচে ৩৬। শেষ ম্যাচে ১০ চার ও ২ ছক্কায় ৪৮ বলে করেন ৮১ রান। ১৪৩ রান করে সিরিজের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ২০ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। প্রথমবারের মতো র‌্যাঙ্কিংয়ে ঢোকা এই তরুণের সঙ্গে যৌথভাবে ৩৮ নম্বরে আছেন ইংল্যান্ডের কিপার-ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো।

গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ‘মানসিক স্বাস্থ্যজনিত’ সমস্যার কারণে ক্রিকেট থেকে অনির্দিষ্টকালের বিরতি নেওয়ায় অলরাউন্ডারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে তাকে টপকে শীর্ষে উঠে এসেছেন আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবি। চারে আছেন মাহমুদউল্লাহ।

ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে দুই ধাপ এগিয়ে দুইয়ে উঠে এসেছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। দুর্দান্তভাবে র‌্যাঙ্কিংয়ে ফিরেছেন ইংল্যান্ডের দাভিদ মালান। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া ইংলিশ ব্যাটসম্যান আছেন তিন নম্বরে। দশ ধাপ এগিয়ে যৌথভাবে নবম স্থানে আছেন ওয়েন মর্গ্যান। সাত ধাপ এগিয়ে তার সঙ্গে আছেন মার্টিন গাপটিল।

টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের সেরা ২৯ নম্বরে থাকা মাহমুদউল্লাহ। নাঈম ছাড়া সেরা পঞ্চাশে আছেন শুধু ৪১ নম্বরে থাকা লিটন দাস। ৫১, ৫২ ও ৫৩ নম্বরে আছেন যথাক্রমে সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম ও সাব্বির রহমান।

বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে সেরা পাঁচের সবাই স্পিনার। সেরা দশে মাত্র দুজন পেসার। যথারীতি শীর্ষে আছেন আফগান অধিনায়ক রশিদ খান। মাঠের বাজে পারফরম্যান্সে অবনতি হয়েছে মুস্তাফিজুর রহমানের। বাংলাদেশিদের মধ্যে অবশ্য শীর্ষে ৩২ নম্বরে থাকা বাঁহাতি পেসারই। সেরা পঞ্চাশে নেই বাংলাদেশের আর কেউ।

টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দল আগের মতোই পাকিস্তান। তবে দুইয়ে থাকা অস্ট্রেলিয়া ব্যবধান কমিয়ে এনেছে মাত্র ১ পয়েন্টে। আফগানিস্তানের সঙ্গে ব্যবধান কিছুটা কমিয়েছে বাংলাদেশ। ২২৪ থেকে বেড়ে মাহমুদউল্লাহদের রেটিং পয়েন্ট হয়েছে ২২৭, আফগানদের পয়েন্ট ২৩৫।

শেয়ার