বাংলাদেশকে ভোগানোর রহস্য খোলাসা করলেন না রোহিত

সমাজের কথা ডেস্ক॥ মেলবোর্নে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনাল কিংবা এজবাস্টনে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমি-ফাইনাল, মিরপুরে এশিয়া কাপের ম্যাচ বা কলম্বোয় নিদাহাস ট্রফি, গত কয়েক বছরে বাংলাদেশের বোলিং বারবার গুঁড়িয়ে দিয়েছেন রোহিত শর্মা। বাংলাদেশের বিপক্ষে এত ভালো করার রহস্য কি? ভারতের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের উত্তর, খোলাসা করে দিলে তো সেটি আর রহস্য থাকল না!
ভারতে চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ৪৩ বলে ৮৫ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়েছেন রোহিত। বাংলাদেশের বিপক্ষে গত বছর শ্রীলঙ্কায় নিদাহাস ট্রফিতে খেলেছিলেন ৪২ বলে ৫৬ ও ৬১ বলে ৮৯ রানের দুটি ইনিংস। ২০১৬ এশিয়া কাপের এক ম্যাচে করেছিলেন ৫৫ বলে ৮৩। সব মিলিয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে ১০ টি-টোয়েন্টিতে তার ফিফটি ৫টি, দেড়শর কাছাকাছি স্ট্রাইক রেটে ৪৫০ রান করেছেন ৪৫ গড়ে।
বাংলাদেশের বিপক্ষে আরও উজ্জ্বল পারফরম্যান্স তার ওয়ানডেতে। যদিও ২০০৮ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত ৫ ওয়ানডেতে একবারও ৩০ রান ছুঁতে পারেননি। কিন্তু ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনালে মেলবোর্নে ১৩৭ রানের সেই ইনিংসের পর আর থামাথামি নেই। সেঞ্চুরি করেছেন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ম্যাচে, ইংল্যান্ডে গত বিশ্বকাপেও। বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৩ ওয়ানডেতে ৩ সেঞ্চুরি ও ২ ফিফটিতে তার রান এখন ৬০ গড়ে ৬৬০।
বাংলাদেশের বিপক্ষে কিভাবে এত সফল তিনি? টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ম্যাচের আগে জানতে চাওয়া হলো তার কাছেই। রোহিত উত্তর দিলেন বটে, তবে রহস্যের সমাধান দিলেন না।
“রহস্যটি যদি বলেই দেই, তাহলে তো তারা জেনে যাবে এবং আমাকে সেভাবেই আটকাবে। কাজেই আমি সেটা খোলাসা করব না। তবে শুধু বাংলাদেশ নয়, সব দলের বিপক্ষে খেলাই আমি উপভোগ করেছি। ক্রিকেট খেলার জন্যই এখানে আছি। দেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে পারা অনেক বড় ব্যাপার। এর প্রতিটি মুহূর্ত আমি আমি উপভোগ করছি।”
বাংলাদেশ সময় রোববার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় শুরু হবে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি। প্রথম দুই ম্যাচ শেষে ১-১ সমতা থাকায় নাগপুরের ম্যাচটি পরিণত হয়েছে অলিখিত ফাইনালে।

শেয়ার