ইরাকে তীব্র হচ্ছে আন্দোলন, বাগদাদ অবরুদ্ধ

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ইরাকের রাজধানী বাগদাদে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ দিন দিন ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। বিক্ষোভকারীরা বাগদাদের বিভিন্ন সড়কে অবস্থান নিয়ে কার্যত নগরীটি অচল করে দিয়েছে। বিবিসি জানায়, রোববার বিক্ষোভকারীরা বাগদাদের প্রধান সড়কগুলোগুলো বন্ধ করে দিয়ে রাজধানীকে অবরুদ্ধ করে রাখে। এদিন শিক্ষার্থীরা স্কুল-কলেজের সামনের সড়কে বসে পড়ে বিক্ষোভ করেছে।
বিক্ষোভের কারণে সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবস রোববার সরকারি অফিস-আদালত বন্ধ ঘোষণা করা হয়।
২৫ বছরের এক বিক্ষোভকারী বলেন, “যতক্ষণ পর্যন্ত দুর্নীতিবাজ লোকজন এবং চোরদের লাথি মেরে বের করে দেওয়া না হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত সড়ক বন্ধ করে আন্দোলনের মাধ্যমে আমরা সরকারকে কঠিন সতর্কবর্তা দিতে চাই।”
“শুধুমাত্র জরুরি সেবা ছাড়া অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তাদের আমরা নিজেদের কার্যালয়ে যেতে দেব না।”
বাগদাদের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের কুট নগরীতেও একই ধরনের বিক্ষোভ আন্দোলন হচ্ছে। রোববার আরো দক্ষিণের বহু শহর এবং নগরীতে সরকারি কার্যালয় এবং স্কুল বন্ধ হয়ে গেছে।
কর্মসংস্থান সংকট দূর করা, সরকারের দুর্নীতি বন্ধসহ সরকারি সেবার মান বাড়ানোর দাবিতে গত ১ অক্টোবর থেকে বাগদাদে মানুষের আন্দোলন-বিক্ষোভ তীব্র হচ্ছে।
শনিবারের বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে এক বিক্ষোভকারী নিহত ও ৯১ জন আহত হওয়ার পর আন্দোলনে তীব্রতা বেড়েছে।
বিক্ষোভ থামাতে অক্টোবরের শেষ দিকে স্থানীয় প্রশাসন নগরীজুড়ে কারফিউ জারি করে। কিন্তু বিক্ষোভকারীরা ওই কারফিউ ভেঙে সড়কে নেমে আসে। পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত আড়াইশর বেশি মানুষ নিহত হয়েছে।

শেয়ার