দুই বোনকে ভারতে নিয়ে বিক্রি পাচারকারীর ১০ বছর কারাদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ চিকিৎসার কথা বলে একটি মেয়েকে ভারতে বিক্রির দায়ে শহিদুল ইসলাম শহিদ নামে এক পাচারকারীকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদ- ও অর্থদ- দিয়েছেন যশোরের আদালত। সোমবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক টিএম মুসা এ রায় দিয়েছেন। দ-প্রাপ্ত শহিদুল ইসলাম সাতক্ষীরা সদর উপজেলার নারানজোল গ্রামের আব্দুল মাজেদের ছেলে। সরকারপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন পিপি এম ইদ্রিস আলী।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, আসামি শহিদুল ইসলাম ২০০৫ সালের ২ মার্চ কেশবপুরের একটি বাড়িতে আসেন। এসময় ওই বাড়ির একটি মেয়ে অসুস্থ ছিলেন। আসামি অসুস্থ মেয়েটিকে ভারতে ভালো ডাক্তার দেখানোর কথা বলে সাতক্ষীরায় তাদের বাড়িতে নিয়ে যান। তবে অসুস্থ মেয়েটির সাথে তার আরেক বোন ছিলেন। দুই বোনকে আসামি শহিদুল ভারতে নিয়ে যান। সেখানে দুই বোনকেই বিক্রি করে চলে আসেন। বিক্রি হওয়া দুই বোনের মধ্যে থেকে একজন পালিয়ে বাড়িতে আসেন। ওই বোন শহিদুলের বিরুদ্ধে যশোর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একই বছরের ১ এপ্রিল মামলা করেন। তদন্ত শেষে কেশবপুর থানার এসআই এজাজুল ইসলাম অভিযুক্ত শহিদুলের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামি শহিদুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক তাকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদ- ও ২০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেন। জরিমানার টাকা অনাদায়ে তাকে আরো ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদ-ের আদেশ দেওয়া হয়েছে।

শেয়ার