ইসলামের নামে কটূক্তি ও ভোলায় হতাহতের প্রতিবাদে যশোরে বিক্ষোভ সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ভোলার বোরহানউদ্দিনে আল্লাহ, হযরত মোহাম্মদ (সা.) ও ইসলামের নামে কটূক্তিকারী বিপ্লব চন্দ্র শুভ্রর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে যশোরে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে জেলা ইমাম পরিষদ। সমাবেশ থেকে প্রতিবাদ মিছিলে গুলি করে চারজনকে হত্যায় জড়িতদের সঠিক তদন্তের মাধ্যমে খুঁজে বের করার দাবি জানানো হয়।
গতকাল বিকালে শহরের দড়াটানা ভৈরব চত্বরে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। পরে শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি মণিহার চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।
জেলা ইমাম পরিষদের সভাপতি মাওলানা আনওয়ারুল করিম যশোরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সেক্রেটারি মাওলানা বেলায়েত হোসেন, সহ-সভাপতি মুফতী আব্দুর রশিদ ও মুফতী শামসুর রহমান, উপদেষ্টা মাওলানা রফিকুল ইসলাম, মাওলানা হামিদুল ইসলাম ও মুফতী মুজিবুর রহমান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা আব্দুল্লাহ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আরিফুল্লাহ আলমগীর, সদস্য মাওলানা নাসিরুল্লাহ, হাফিজুর রহমান, মাওলানা আবুল খায়ের প্রমুখ।
যশোর ফতোয়া বোর্ডের সেক্রেটারি মুফতী আব্দুর রহমান এজাজীর পরিচালনায় সমাবেশে জেলা ইমাম পরিষদের সেক্রেটারি বলেন, ফেসবুকে ইসলাম নিয়ে কটূক্তিকারী বিপ্লব চন্দ্র শুভ্রকে আটক করে তাকে উস্কানিদাতাদের খুঁজে বের করতে হবে। কোথা থেকে টাকা পেয়ে শতকরা ৯৫ ভাগ মুসলমানের দেশে এই অপতৎপরতা চালিয়েছে তা খুঁজে বের করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাওমী মাদ্রাসার স্বীকৃতি দিয়েছেন। তার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইসলামকে ছড়িয়ে দিতে বাংলাদেশে ইসলামিক ফাউন্ডেশন গড়ে তোলেন। আমরা তার কাছে আজকের এই সমাবেশ থেকে ইসলামের নিরাপত্তার জন্য সংসদে বিশেষ আইন করার দাবি জানাচ্ছি। যে আইনের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড থাকতে হবে। যা বাস্তবায়ন হলে আর কেউ ভবিষ্যতে ইসলাম নিয়ে কটূক্তি করতে সাহস পাবে না।

শেয়ার