বিরতিহীন দীর্ঘতম যাত্রীবাহী ফ্লাইটের পরীক্ষা কুয়নতেসের

সমাজের কথা ডেস্ক॥ বিরতিহীনভাবে যাত্রীবাহী বাণিজ্যিক ফ্লাইটের দীর্ঘতম উড়ালের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ক্যারিয়ার কুয়নতেস এয়ারওয়েজ।
দীর্ঘ সময়ের যাত্রায় বিমানচালক, ক্রু ও যাত্রীদের ওপর কী ধরনের প্রভাব পড়ে তা নিয়ে গবেষণার অংশ হিসেবে এ উড়াল হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।
কুয়নতেসের একটি ৭৮৭-৯ বোয়িং বিমান ৪৯ জন আরোহী নিয়ে সরাসরি নিউ ইয়র্ক থেকে সিডনির পথে ১৯ ঘণ্টা ১৬ মিনিটে ১৬ হাজার ২০০ কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করে, জানিয়েছে বিবিসি।

অস্ট্রেলিয়ার এ কোম্পানিটি আগামী মাসে লন্ডন থেকে সিডনিতে আরও একটি বিরতিহীন যাত্রীবাহী ফ্লাইটের পরীক্ষা চালানোর পরিকল্পনা করছে।
এসব পথে যাত্রীবাহী বিমান চালানো হবে কিনা চলতি বছরের শেষ দিকে কুয়নতেস এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। সিদ্ধান্ত হলে, বিরতিহীন দীর্ঘতম উড়ালের এ সেবা ২০২২ কিংবা ২০২৩ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে।
ভরা যাত্রী ও কার্গো নিয়ে এ ধরনের দীর্ঘ দূরত্ব অতিক্রমের ক্ষমতা এখনও বাণিজ্যিকভাবে পরিচালিত কোনো উড়োজাহাজের দেখা যায়নি বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
পুনরায় জ্বালানি ভরার বিড়ম্বনা এড়াতে কুয়নতেসের এ নিউ ইয়র্ক-সিডনি ফ্লাইটটি ধারণক্ষমতার সর্বোচ্চ জ্বালানি নিয়ে রওনা দিয়েছিল; আরোহীদের ব্যাগের ওজন কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হয় এবং উড়োজাহাজটিতে কোনো কার্গো নেওয়া হয়নি।
উড়োজাহাজে ওঠার পরপরই যাত্রীরা তাদের ঘড়ির কাঁটা ঘুরিয়ে সিডনির সময়ে চলে যান। জেটল্যাগ কমাতে পূর্ব অস্ট্রেলিয়ায় যতক্ষণ রাত না হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত যাত্রীদের জাগিয়ে রাখার চেষ্টাও হয়েছে।
উড্ডয়নের ছয় ঘণ্টা পর বেশি কার্বোহাইড্রেটযুক্ত খাবার দেওয়া হয়; এরপর উড়োজাহাজের ভেতরকার আলো কমিয়ে যাত্রীদের ঘুমানোর পরিবেশ তৈরি করা হয়।
বিমানটির ভেতরে যাত্রীদের ব্যায়ামের ক্লাস এবং বিভিন্ন টাইম জোন পার হওয়ার সময় মানুষের শরীরে কী ধরনের প্রভাব পড়ে এটি পর্যবেক্ষণের পাশাপাশি বিমানচালকের মস্তিষ্কের তরঙ্গ নিরীক্ষণ, মেলাটোনিনের মাত্রা, সতর্কতার পরিমাণ এসব পরীক্ষা করে দেখা হয়।
সাম্প্রতিক বছরগুলোতে কোন উড়োজাহাজ কার চেয়ে বেশি দূরত্বে বিরতিহীনভাবে যেতে পারে, তা নিয়ে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা চলছে।
সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনস গত বছর থেকে বিরতিহীন সিঙ্গাপুর-নিউ ইয়র্ক ফ্লাইট চালু করেছে; প্রায় ১৯ ঘণ্টার এ ভ্রমণই এ মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘতম দূরত্ব পাড়ি দেওয়া বিমান যাত্রা।
কুয়নতেসও গত বছর থেকে ১৭ ঘণ্টার বিরতিহীন পার্থ-লন্ডন ফ্লাইট চালু করেছে। কাতার এয়ারওয়েজের অকল্যান্ড-দোহা ফ্লাইটে সময় লাগছে সাড়ে ১৭ ঘণ্টা।

শেয়ার