যশোরে চুরি হওয়া সোনার গহনা উদ্ধার, গৃহপরিচারিকা স্বামীসহ আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর এমএম কলেজের দক্ষিণে প্রিন্সিপ্যাল ইবাদুল হকের ভাড়ির ভাড়াটিয়া পারভেজ আলমের বাড়ি থেকে চুরি হওয়া সোনার গহনা উদ্ধার করেছে ডিবি পুলিশ। একই সাথে গৃহপরিচারিকা রুমা বেগম (৩৪) ও তার স্বামী জাভেদ আলীকে আটক করা হয়েছে। তাদের বাড়ি চুয়াডাঙ্গার জীবননগর গ্রামের বালিহুদা গ্রামে।
ডিবি পুলিশের ওসি মারুফ আহম্মদ জানিয়েছেন, পারভেজ আলম ভারতে চিকিৎসার জন্য স্ত্রীকে সাথে নিয়ে গত ২৮ সেপ্টেম্বর দুপুর ২টার দিকে বেনাপোল সীমান্তে পৌছে দিয়ে আবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বাড়ি ফিরে আসেন। এসে দেখেন আলমারি খোলা এবং ভিতরে তছনছ করা। পরে দেখতে পান ভিতরে থাকা নগদ এক লাখ টাকা ও সোনার ৮ভরি অলংকারসহ সাড়ে ৪ লাখ টাকার মালামাল নেই। তবে বাসা থেকে যাওয়ার সময় গৃহপরিচারিকা রুমাকে রেখে গিয়েছিলেন। কিন্তু ফিরে এসে আর রুমার দেখা পাননি পারভেজ আলম। পরে তিনি মামলা করেন কোতোয়ালি থানায়।
এই মামলার তদন্ত করতে গিয়ে শুক্রবার রাতে জীবননগর থেকে রুমা ও তার স্বামীকে আটক করা হয়। পরে ঘর তল্লাশি করে ৪ ভরি ৮ আনা সোনার গহনা জব্দ করা হয়। এছাড়া ঘর থেকে কুষ্টিয়া, খুলনার, রাজশাহী, ঝিনাইদহ, যশোরসহ বিভিন্ন এলাকার জুয়েলার্সের পরিচয় ছাপানো ছোট পারস (বাগ) পাওয়া গেছে। পারভেজ আলমের বাড়িতে কাজ করার সময় রুমা নিজের নাম রতœা বলে জানিয়েছিল। ধারনা করা হচ্ছে রুমা ও তার স্বামী পেশাদার চোর। তারা বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে বাসা বাড়িতে কাজের নাম করে ঢুকে সুযোগ বুঝে সোনার গহনা, নগদ টাকাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র হাতিয়ে নেয়। তাদেরকে রিমান্ডে নিয়ে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করলে সোনা চুরির আরো তথ্য পাওয়া যেতে পারে বলে ওসি মারুফ আহম্মদ জানিয়েছেন।

শেয়ার