‘বেচেন্দ্রমোদী’!

সমাজের কথা ডেস্ক॥ হরিয়ানা ও মহারাষ্ট্রে বিধানসভা নির্বাচনের আগে আগে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের বেসরকারিকরণ নীতির কড়া সমালোচনা করেছেন কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি রাহুল গান্ধী।

বৃহস্পতিবার এক টুইটে তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে ‘বেচেন্দ্রমোদী’ অ্যাখ্যা দিয়ে কটাক্ষও করেছেন বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

“বছরের পর বছর কঠোর পরিশ্রমে বানানো সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো বেচেন্দ্রমোদী তার স্যুটেড-বুটেড বন্ধুদের কাছে বেচে দিচ্ছেন। এ পদক্ষেপ সেসব প্রতিষ্ঠানের লাখ লাখ শ্রমিককে আতঙ্ক ও অনিশ্চয়তার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এই লুটের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাঁড়াচ্ছি,” বলেছেন রাহুল।

এর আগে মঙ্গলবারও তিনি প্রধানমন্ত্রীর দিকে ‘আক্রমণের তীর’ ছুড়েছিলেন।

“মোদী হচ্ছেন শিল্পপতি আদানি-আম্বানিদের লাউডস্পিকার। অনেকটা পকেটমারদের মতো, যারা চুরির আগে মানুষকে বিভ্রান্ত করে রাখে। তার (মোদী) একমাত্র কাজ হচ্ছে আপনাদের মনোযোগ অন্যদিকে ঘুরিয়ে রাখা, যেন এ সুযোগে তিনি আপনাদেরই টাকাপয়সা নির্দিষ্ট কিছু শিল্পপতিকে দিয়ে দিতে পারেন,” মহারাষ্ট্রের ভিদর্ভের ইয়াভাতমালে কংগ্রেসের নির্বাচনী প্রচারসভায় রাহুল এমনটা বলেছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা পিটিআই।

ভারত পেট্রোলিয়ামের পর বিজেপি সরকার বন্দর, কয়লা খনির মতো জাতীয় সম্পদও বেসরকারিকরণের পরিকল্পনা করছে বলে সাবেক এ কংগ্রেস সভাপতি সতর্ক করেছেন। সরকারের ধনীবান্ধব নীতি ভারতের অর্থনীতিকে বিপাকে ফেলছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

“যখন কোনো দরিদ্র ব্যক্তি টাকাপয়সা পান, তিনি কেনাকাটা করেন। আর চাহিদা বাড়লে উৎপাদকরা উৎসাহিত হন,” বলেন রাহুল। কংগ্রেসের প্রস্তাবিত ‘ন্যূনতম আয় যোজনা’ প্রকল্পে অর্থনীতির চেহারা ফিরবে বলেও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

শেয়ার