ইরানে গোপন সাইবার হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

সমাজের কথা ডেস্ক॥ সেপ্টেম্বরের শেষে ইরানে গোপন সাইবার হামলা পরিচালনা করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। নাম গোপন রাখার শর্তে সংবাদটির সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত করেছেন দু’জন কর্মকর্তা। তবে, বিষয়টি নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি পেন্টাগন। সেপ্টেম্বরের ১৪ তারিখ সৌদি তেলের ট্যাংকারে হয়ে যাওয়া আক্রমণের ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে ওই সাইবার হামলা পরিচালনা করা হয় বলে জানান কর্মকর্তাদ্বয়। তাদের বরাতে আরও জানা গেছে, হামলার মূল লক্ষ্য ছিল তেহরানের প্রোপাগ্রা-া চালানোর স্বক্ষমতা। সাইবার হামলাটিতে ইরানের হার্ডওয়্যার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে রয়টার্সের প্রতিবেদনে। সাইবার হামলা প্রসঙ্গে পেন্টাগন মুখপাত্র এলিসা স্মিথ বলেছেন, “নীতিগত কারণে এবং নিরাপত্তার স্বার্থে কোনো সাইবার অপারেশন, এ বিষয়ক তথ্য এবং পরিকল্পনা নিয়ে আমরা আলোচনা করি না।” এতে করে যুক্তরাষ্ট্রের তরফ থেকে পরিচালিত সাইবার হামলা একটি নাকি একাধিক, সে বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। রয়টার্স জানিয়েছে, ইরানি আগ্রাসনের উত্তরে ট্রাম্প প্রশাসন ঠিক কী ধরনের কৌশল অবলম্বন করছে, সেটির দিকেই ইঙ্গিত করছে সাইবার হামলাটি। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রকে লক্ষ্য করেও সাইবার আক্রমণ চালিয়েছে ইরান। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পুনঃনির্বাচনী প্রচারণার ইমেইল অ্যাকাউন্টে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করেছিল হ্যাকাররা। পরবর্তীতে ওই হ্যাকারদের সঙ্গে ইরানিয়ান সরকারের যোগসূত্র খুঁজে পাওয়া গেছে। সৌদি তেল ট্যাংকারে আক্রমণের ঘটনার পর থেকেই বেশ উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরান সম্পর্ক। তেহরান দাবি করেছে, লোহিত সাগরে অবস্থিত ইরানিয়ান ট্যাংকারে হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। পাশপাশি ওই হামলার উত্তর দেওয়ার হুমকিও জানিয়েছে দেশটি।

শেয়ার