শরণখোলায় শ্রমিক ইউনিয়নের সভায় আহবায়ক কমিটি গঠন

শরণখোলা(বাগেরহাট) প্রতিনিধি॥ বাগেরহাটের শরণখোলায় বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির নানা অনিয়মের প্রতিবাদ জানিয়ে শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত, পুরাতন কমিটি ভেঙ্গে নুতন কমিটি গঠন, সড়কের আইন শৃংঙ্খলা বাস্থবায়ন, গচিছত আয় ব্যয়ের হিসাব প্রদানসহ ৬ দফা দাবিতে সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
৯ অক্টোবর সন্ধ্যায় উপজেলার রায়েন্দা তাফালবাড়ী বাসস্ট্যান্ডে শ্রমিক ইউনিয়নের অস্থায়ী কার্যালয়ে শ্রমিক নেতা আফজাল হাওলাদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মিজান শাহ এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, শ্রমিক নেতা বেল্লাল হাওলাদার, মিজানুর রহমান, মামুন, রাসেল, ফারুক, বাবুল ও বাস মালিক মীর আজাদ রানা, আলমগীর হোসেন ফরাজী, শহিদুল হাওলাদার, মহিদুল ফকির, আফজাল হাওলাদার সহ শ্রমিক ইউনিয়নের ভিবিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
সভায় বক্তারা শরণখোলা-মোড়েলগঞ্জ এবং মোংলা বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির নানা অনিয়মের বিষয় তুলে ধরেন। তারা বলেন, বছরের পর বছর ধরে মালিক সমিতির কর্তা ব্যক্তিরা শ্রমিক ইউনিয়নকে কুক্ষিগত করে রেখেছে। তারা শ্রমিকদের দাবি না মেনে নিজেদের স্বার্থ হাসিল করে আসছেন। কর্তারা যার যার আখের গোছাতে ব্যস্ত এবং বর্তমান কমিটি সম্পুর্ণ ব্যর্থ কমিটি বলে দাবি করেন।
এছাড়া কোষাধ্যক্ষ সঞ্জিব পোদ্দার ক্ষমতার অপব্যবহার করে দীর্ঘদিন ধরে শ্রমিকদের সাথে নানাবিধ খারাপ আচরণ করে আসছে। সঞ্জিবের বিষয়ে নেতারা ব্যবস্থা না নিলে আরও কঠোর কর্মসূচি গ্রহন করা হবে।
পরে শতাধিক শ্রমিকের স্বাক্ষরিত রেজ্যুলেশনের মাধ্যমে একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। এতে বেল্লাল হাওলাদারকে আহ্বায়ক, মৌজালী শেখকে যুগ্ম আহ্বায়ক, মিজানুর রহমানকে সদস্য সচিব, মোঃ ফারুক, মোঃ মামুন, আশ্রাফুল, হালিম, হাসান, তানুসহ ৯জনকে সদস্য করা হয়েছে।
তবে, বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হারুন অর-রশিদ বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে সমিতির নামে আদালতে মামলা চলছে। মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত শ্রমিকদের কোন ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া যাচেছ না।
অপরদিকে , সভাপতি শামীম আহম্মেদ পলাশ বলেন, বাগেরহাট-৪ আসনের এমপি মহোদয়ের নির্দেশে বর্তমান কমিটির কার্যক্রম চলছে। তবে শ্রমিকরা যে অভিযোগ তুলেছে তা ভিত্তিহীন।

শেয়ার