সিরিয়ায় তুরস্কের অভিযান রাস আল আইনে তীব্র লড়াই

সমাজের কথা ডেস্ক॥ সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে তুরস্কের বাহিনীগুলোর চলমান সামরিক অভিযানের চতুর্থ দিনে সিরিয়ার সীমান্ত শহর রাস আল আইনের চারপাশে তীব্র লড়াই শুরু হয়েছে। তুরস্ক শহরটির নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার দাবি করলেও কুর্দি নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স (এসডিএফ) তা অস্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। এখান থেকে আরও পশ্চিমে অবস্থানরত মার্কিন সেনারাও তুরস্কের বাহিনীর গোলার মুখে পড়েছে, পেন্টাগন এমন অভিযোগ করলেও তুরস্ক তা অস্বীকার করেছে। অঞ্চলটিতে এসডিএফের সঙ্গে তুরস্কের বাহিনীর চার দিনের লড়াইয়ে অন্তত ৩০ বেসামরিক নিহত ও দুই লাখেরও বেশি বাস্তুচ্যুত হয়েছেন বলে খবর পাওয়ার কথা জানিয়েছে বিবিসি। তুরস্কের বাহিনী কয়েকদিন ধরে রাস আল আইনে ব্যাপক গোলাবর্ষণ করার পর শনিবার শহরটিতে তুরস্কের সামরিক বাহিনী ও এসডিএফের মধ্যে তুমুল লড়াই শুরু হয়। শহরটির ওপরে যুদ্ধবিমান চক্কর দিচ্ছে ও সেখান থেকে তীব্র গোলাগুলির শব্দ পাওয়া যাচ্ছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

এরইমধ্যে তুরস্ক সমর্থিত সিরীয় বিদ্রোহীদের এক মুখপাত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, তারা তাল আবিয়াদ ও রাস আল আইনের মধ্যবর্তী কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ সড়কটির দখল নিয়েছেন এবং রাস আল আইনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সময় ১৮টি গ্রাম দখল করেছেন। চতুর্থ দিনের লড়াই চলমান থাকা পর্যন্ত এসডিএফের প্রায় ৭৪ জন যোদ্ধা নিহত হয়েছেন বলে যুক্তরাজ্যভিত্তিক পর্যবেক্ষক গোষ্ঠী সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস (এসওএইচআর) জানিয়েছে। এদের অধিকাংশই তাল আবিয়াদ শহরের আশপাশে নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে গোষ্ঠীটি। ইতোমধ্যে তুরস্কের এই সামরিক অভিযানে অংশ নেওয়া তুরস্ক সমর্থিত সিরীয় বিদ্রোহী গোষ্ঠীর ৪৯ জন যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। এ লড়াইয়ে তুরস্কের প্রথম সেনা নিহত হওয়ার কথা নিশ্চিত করেছে দেশটির সামরিক বাহিনী এবং আরও তিন জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে তারা।

শেয়ার