আশাশুনিতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আশাশুনি (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি॥ সাতক্ষীরার আশাশুনিতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগে ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন বড়দল ইউনিয়নের তহশীলদার রনজিত কুমার মন্ডল। এ ঘটনায় সরকারের পক্ষে আজিজুল ইসলাম স্বাক্ষী দেওয়ায় গত ২৯ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টার দিকে পাইকগাছা থানার ধামরাইল গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদ মোড়লের ছেলে মুনতাসির মামুন, মৃত ইউছুপ সরদারের ছেলে নজরুল ইসলাম, মৃত রুস্তম আলীর ছেলে শফিকুল, আব্দুর রাজ্জাক মোড়লের ছেলে হেলাল মোড়ল পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রকাশ্য দিবালোকে মৎস্য ঘের থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে বড়দল ওয়াপদা রাস্তার উপরে একা পেয়ে মারপিট করেন। এব্যাপারে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর আশাশুনি থানায় ১৩৫৬ নং একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।
জানা গেছে, গত কয়েক দিন আগে উল্লিখিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বালু উত্তোলন বন্ধ রাখার জন্য প্রাথমিকভাবে সহকারী কমিশনার (ভূমি) নোটিশ প্রদান করেন। তারা কোন কিছু তোয়াক্কা না করে ছুটির দিনে অফিস বন্ধ থাকার সুবাদে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সহকারী (ভূমি) কমিশনার পাপীয়া আক্তার ও প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তারা তাদের নদী থেকে হাতে নাতে আটক করেন। আটকের পর আশাশুনি থানায় সরকারি সম্পদ আত্মসাতের অপরাধে তাদের বিরুদ্ধে মামলা রজু হয়। তবে ৮ জনের মধ্যে ২ জন দীর্ঘ দিন জেল হাজতে থাকার পর জামিনে মুুক্তি পেয়ে হুমকি অব্যহত রেখেছেন এবং আসামিদের বাড়ি পাশ্ববর্তী থানা পাইকগাছা হওয়ায় তাদেরকে গ্রেফতারের জন্য মেসেজ দেওয়ার পর ও প্রকাশ্য আসামিরা ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ তাদের কে গ্রেফতার করছে না বলে জানিয়েছেন মামলার সাক্ষীরা।

শেয়ার