সাতক্ষীরায় দু’টি দৈনিকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

আব্দুল জলিল, সাতক্ষীরা ॥ জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক হায়দ্র আলি তোতার বাড়ি থেকে নয় জুয়াড়ি ও টাকাসহ সরঞ্জাম আটক শীর্ষক এক খবরের জেরে সাতক্ষীরার দুটি দৈনিক পত্রিকার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এই রিপোর্টকে কেন্দ্র করে পত্রিকা দু’টির সম্পাদকের বিরুদ্ধে রোববার প্রকাশ্য জনসভায় বিষোদগারের পর তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে এই মামলা দায়ের করা হয়েছে।
মামলা দুটি আমলে নিয়ে আদালত জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার ওপর তদন্ত দিয়েছেন। আগামি ২০ জানুয়ারি ধার্য দিনে তদন্ত প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
পত্রিকা দু’টি হচ্ছে দৈনিক পত্রদূত ও দৈনিক কালের চিত্র। পত্রদূতের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক সাবেক গণপরিষদ সদস্য আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত সম আলাউদ্দিন। কালের চিত্রর সম্পাদক জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ আবু আহমেদ।
বাদি জিয়াউর বিন সেলিম মামলায় উল্লেখ করেছেন, দৈনিক কালের চিত্রর অনলাইন ওয়েবসাইটে গত ২৫ সেপ্টেম্বর ইচ্ছাকৃতভাবে ‘সাতক্ষীরা সদর-২ আসনের এমপির ভাইয়ের বাড়িতে গড়ে ওঠা মিনি ক্যাসিনোতে গোয়েন্দা পুলিশের হানা, জুয়ার সরঞ্জাম উদ্ধার’ শিরোনামে আংশিক মিথ্যা তথ্য দিয়ে একটি পোস্ট প্রকাশ ও সম্প্রচার করা হয়। ওই সংবাদের শিরোনামে ‘হায়দর আলি তোতাকে সদর আসনের এমপির ভ্রাতা’ বলে প্রকাশ করা হয়। এছাড়া এতে বলা হয় ‘তার এমপি ভাই ও ছাত্রলীগ নেতা ভাইপো ও নিজে আওয়ামী লীগ নেতা হওয়ায় দাপট দেখিয়ে দীর্ঘদিন যাবত তার বসত বাড়িতে জুয়াসহ বিভিন্ন অনৈতিক কার্যকলাপ পরিচালনা করিয়া আসিতেছে’। এই তথ্য মিথ্যা বলে বাদি মামলায় উল্লেখ করেন। মামলাটিতে বিবাদীভুক্ত হয়েছেন দৈনিক কালের চিত্র পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক অধ্যক্ষ আবু আহমেদ ও পত্রিকায় কর্মরত গাজি হাবিব রেহমান, রেশমা রোসনী ও তাপস ঘোষ।
এদিকে একই বাদি জিয়াউর বিন সেলিম অপর মামলায় বলেন, দৈনিক পত্রদূতের অনলাইন ওয়েব সাইটে গত ২৬ সেপ্টেম্বর ‘এমপি রবির মামাতো ভাই তোতার বাড়িতে পুলিশ হানা দিয়ে নগদ টাকা সরঞ্জামসহ জুয়াড়ি গ্রেফতার’ শিরোনামে আংশিক মিথ্যা তথ্য দিয়ে একটি পোস্ট করা হয়। প্রকাশিত সংবাদে আরও বলা হয় ‘ফুফাতো ভাই এমপি হওয়ায় এমপির সম্মান রক্ষার্থে আইন শৃংখলা বাহিনী এ যাবত কোনো অভিযান পরিচালনা করেনি বলে ধারণা করা হয়’। বাদি আরও বলেন ‘ধারণা করা হয়’ লিখে এমপি রবির ইমেজ নষ্ট ও হেয় করার চেষ্টা করা হয়েছে। তাছাড়া পুলিশের বরাত দিয়ে প্রকাশিত সংবাদে ‘এমপি রবির মামাতো ভাই তোতা’ বিষয়ক তথ্য পুলিশের কোনো প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়নি বলে বাদি তার আরজিতে উল্লেখ করেন। এ মামলায় আসামিভূক্ত হয়েছেন দৈনিক পত্রদূত পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক প্রয়াত সম আলাউদ্দিনের কন্যা বর্তমান সম্পাদক লায়লা পারভিন সেঁজুতি ও শেখ মোস্তাফিজুর রহমান ফয়সল।
এদিকে আওয়ামী লীগ নেতা তোতার বাড়ি থেকে জুয়াড়ি গ্রেফতার শীর্ষক খবরকে কেন্দ্র করে রোববার সাতক্ষীরায় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনসমূহের এক সমাবেশে দৈনিক কালের চিত্র ও দৈনিক পত্রদূত পত্রিকার ডিক্লারেশন বাতিলের দাবি জানানো হয়। এ সময় বক্তারা দুই সম্পাদকের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেন। সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এসএম শওকত হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন সদর আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। তিনি বলেন ‘খুলনায় একটি দৈনিকের ডিক্লারেশন বাতিল করা হয়েছে। এর সম্পাদক এখন জেলে’।

শেয়ার